মদনে এক স্কুল শিক্ষিকা ৫দিন ধরে নিখোঁজ, থানায় স্বামীর ডায়েরি

 

 

মদন(নেত্রকোনা) প্রতিনিধি ঃ

 

নেত্রকোনা মদনের সাইতপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ‍্যালয়ের ওয়াফিয়া আক্তার নামে এক শিক্ষিকা ৫দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছেন। শিক্ষিকার স্বামী এ এফ এম ইমদাদ উল্লাহ স্ত্রীর খোঁজে মদন থানায় শনিবার রাতে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কামরুল হাসান জানুকে দায়ী করে একটি সাধারণ ডায়রি করেছেন।

সাধারণ ডায়েরি সৃত্রে জানা যায়, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও শিক্ষিকার মধ‍্যে সিনিয়রিটি ও শ্রেণি রুটিন নিয়ে গত বছর ৮ই ডিসেম্বর বিরুদ্ধ সৃষ্টি হয়।উক্ত বিষয়টি উপজেলা সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ নাজমূল হুদা নিস্পত্তি করেন দেন। চলতি বছরের ৮ মার্চ প্রধান শিক্ষক ও শিক্ষিকা মধ‍্যে ঘটনার পূণরাবৃত্তি ঘটে। প্রধান শিক্ষক বিষয়টি তাৎক্ষণিক সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তাকে অবগত করে, শিক্ষিকাকে বরখাস্ত করতে বলেন। এ ঘটনা পর থেকে বাবার বাড়ি হাসনপুর হতে তিনি নিখোঁজ হন। তার মোবাইল ফোন বন্ধ রয়েছে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বলেন, ৮ মার্চ ক্লাসের সময় নিয়ে শিক্ষিকার সাথে আমার কথা কাটাকাটি হয়। তিনি রাগে বিদ্যালয় থেকে চলে যান। কয়েক দিন যাবত বিদ্যালয়ে না আসায় তাকে অনুপস্থিত দেখানো হচ্ছে। শিক্ষিকার স্বামী থানা আমার নামে মিথ্যা ডায়েরি করেছে।

সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ নাজমূল হুদা জানান, প্রধান শিক্ষক কামরুল হাসান জানুর সাথে সহকারি শিক্ষিকা ওয়াফিয়ার ক্লাসের সময় নিয়ে কথা কাটাকাটি হওয়ার বিষয়টি শুনেছি। আসলে প্রধান শিক্ষক ও সহকারি শিক্ষিকার মধ্যে বনিবনা হচ্ছে না। প্রধান শিক্ষক আমাকে জানিয়েছেন উক্ত শিক্ষিকা তিন দিন ধরে বিদ্যালয়ে আসছে না। তবে তিনি নিখোঁজ কি না আমি বলতে পারছি না।

ওসি মোহাম্মদ ফেরদৌস আলম জানান, শিক্ষিকা নিখোঁজের ব্যাপারে শনিবার রাতে তার স্বামী প্রধান শিক্ষককে দায়ী করে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। শিক্ষিকাকে উদ্ধারের ব্যাপারে সর্বোচ্চ চেষ্টা অব্যাহত করছি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
বিষয়: * ডায়েরি * থানা * স্বামী
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ