চুরি যাওয়া শিশু ৪দিন পরে পাওয়া গেলো রাস্তায় 

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:

স্কুল থেকে মাত্র ৯ মাসের শিশু চুরি হওয়ার চারদিন পর রোববার গভীর রাতে গ্রামীণ কাঁচা সড়কের পাশে পাওয়া যায়। এসময় কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে ৪ দিন আগে চুরি হয় ৯ মাসের শিশু মালিহা ইসলাম ওহি। গতকাল দিবাগত রাত ১টার দিকে উপজেলা হাজির হাট ইউনিয়নের উপকূল কলেজ সংলগ্ন কাঁচা সড়ক থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। পরে ওহিকে তার মা মরিয়ম বেগমের কোলে তুলে দেন (ওসি তদন্ত) আব্দুল জলিল। তবে রাত ১টায় শিশু ওহিকে কীভাবে পাওয়া গেল সে বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে স্থানীয়দের মধ্যে।

কমলনগর থানা তদন্ত (ওসি) আব্দুল জলিল সাংবাদিক অ আ আবীর আকাশকে জানান, রাত আনুমানিক ১টার দিকে তারা ফোনে জানতে পারেন, একটি শিশুকে উপকূল কলেজের পিছনে কাঁচা সড়কে দেখা গেছে। খবর পেয়ে দ্রুত পুলিশ এবং মোবাইল টিম ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে। তিনি আরও জানান, শিশু ওহিকে উদ্ধার করে তার মা মরিয়ম বেগমকে থানায় ডাকা হয়। পরে তার বাচ্চা নিশ্চিত হওয়ার পর মরিয়ম বেগমের কোলে তুলে দেওয়া হয় শিশু অহিকে।

শিশু ওহি সম্পূর্ণ সুস্থ রয়েছে। মরিয়ম বেগম তার মেয়েকে পেয়ে খুবই খুশি।

কমলনগর থানা ইনচার্জ (ওসি) মো. তহিদুল ইসলাম অ আ আবীর আকাশকে জানান, শিশু ওহিকে রাত ১টার দিকে উপজেলা উপকূল কলেজের পিছনের কাঁচা সড়ক থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে কে বা কারা তাকে সেখানে রেখে গেছে সেটা জানা যায়নি। শিশু ওহিকে তার মা মরিয়ম বেগমের কোলে তুলে দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, মরিয়ম বেগমের বড় মেয়ে সাবিহা ইসলাম মিহি (৬) অগ্রণী রেসিডেন্সিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের নার্সারি শ্রেণির ছাত্রী। স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়া অনুষ্ঠান উপলক্ষে সাবিহার জন্য চুলের ক্লিপ ও বেল্ট কিনতে স্কুলের পাশেই বাজারে যান মরিয়ম। এ সময় মায়া নামে ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীর কাছে ওহিকে রেখে যান। মায়া সম্পর্কে মরিয়মের ফুফাতো বোন হন। কিছুক্ষণ পরে ওহিকে নিতে গেলে মরিয়ম বেগম জানতে পারেন তার মেয়েকে অচেনা কোনো এক নারী নিয়ে গেছে। এদিক-সেদিক খোঁজা-খুঁজির পর না পেয়ে পুলিশের সহযোগিতায় স্কুলের ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরা চেক করা হয়।

এতে দেখা যায়, মাথায় লাল হিজাব, মুখে মাস্ক, ও কালো বোরকা পরা এক নারী শিশু ওহিকে কোলে করে স্কুল থেকে বের হয়ে চলে যাচ্ছেন। স্কুলের সিসি ক্যামেরা ছাড়াও বাজারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সিসি ক্যামেরা যাচাই করেও একই দৃশ্য দেখা গেছে। তবে সে নারী কে বা কি পরিচয় তা জানা যায়নি ও তাকে এখনো আইনের আওতায় আনা সম্ভম হয়নি পুলিশের পক্ষে। ধূর্ত ওই মহিলা ধরা-ছোঁয়ার বাইরে রয়ে গেছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

বিষয়: * লক্ষ্মীপুর
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ