তিতুমীর কলেজে বঙ্গবন্ধুর জুলিও কুরি প্রাপ্তির ৫০ বছর উদযাপন

মোছাঃ তামান্না, সরকারি তিতুমীর কলেজ প্রতিনিধি:
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘জুলিও কুরি’ শান্তি পদক প্রাপ্তির ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন উপলক্ষ্যে রাজধানীর সরকারি তিতুমীর কলেজে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রোববার (২৮ মে) কলেজের শহিদ বরকত মিলনায়তনে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ফেরদৌস আরা বেগমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সিনেট সদস্য গোলাম কুদ্দুছ।
বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন কলেজের উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. মহিউদ্দিন, শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক অধ্যাপক মালেকা আক্তার চৌধুরী। অনুষ্ঠানের আহ্বায়ক ছিলেন রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক শিপ্রা রানী মন্ডল।
প্রধান অতিথি সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সিনেট সদস্য গোলাম কুদ্দুছ বলেন, বঙ্গবন্ধুর এই পদক আমাদের অন্যতম অর্জন। যারাই এই পদক পেয়েছেন তারা সবাই ফ্যাসিবাদ এবং সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী ছিলেন। বঙ্গবন্ধু একটি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার জন্য সারাজীবন স্বপ্ন দেখেছে, এই স্বপ্ন দেখে তিনি ১৩ বছর কারাবাস করেছেন, পরিবার থেকে দূরে ছিলেন তবে বিচ্যুত হয়নি। তিনি অস্ত্রহীন একটি জাতিকে স্বাধীনতা এনে দেয়। বঙ্গবন্ধু সারা পৃথিবীর নিপীড়িত মানুষের নেতা। পাকিস্তান প্রতিষ্ঠার ২২ দিন পর যুবসম্মেলনে বঙ্গবন্ধু বাংলাকে পূর্ব পাকিস্তানের রাষ্ট্রভাষা করার দাবি জানান। ৪৮ সালের ভাষা আন্দোলনের মূল ভূমিকায় ছিলেন বঙ্গবন্ধু। আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা ছিল বঙ্গবন্ধুকে শেষ করে দেওয়ার একটি পরিকল্পনা। বঙ্গবন্ধু চেয়েছিলেন সবাইকে নিয়ে একটি সুন্দর সুখী রাষ্ট্র গড়ে তোলা।
বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনিদের আশ্রয় দেওয়া মানুষরাই এখন আমাদের মানবতা লঙ্ঘনের ছবক দেয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, ৭৫ এর বুলেট এখনো শেখ হাসিনাকে খুঁজে বেড়ায়।
অনুষ্ঠানে তিতুমীর কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি রিপন মিয়া, সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হক জুয়েল মোড়লসহ কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

বিষয়: * তিতুমীর কলেজে বঙ্গবন্ধুর জুলিও কুরি প্রাপ্তির ৫০ বছর উদযাপন
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ