পাবনায় পানিতে ডুবে ও বিদ্যুতায়িত হয়ে ৩ শিশুর মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার, পাবনা:

পাবনায় আলাদা ঘটনায় পানিতে ডুবে ও বিদ্যুতায়িত হয়ে ৩ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। রবিবার (২৮ মে) দুপুরের দিকে জেলার চাটমোহর ও সাঁথিয়া উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে।

মৃত শিশুরা হলো, চাটমোহর উপজেলার চরপাড়া গ্রামের শাহ আলমের ছেলে নাহিদ (৪) একইগ্রামের  হৃদয় হোসেনের ছেলে নাঈম ওরফে রিয়াদ (৫) এবং সাঁথিয়া উপজেলার হাড়িয়াকাহন গ্রামের লোকমান মন্ডলের ছেলে জেলহক হোসেন (১৪)।

স্বজনরা জানান, সকাল সাড়ে দশটার দিকে বাড়ির অদূরে পানি উন্নয়ন বোর্ডের ক্যানেলের পাশে খেলাধুলা করছিল নাহিদ ও রিয়াদ। একপর্যায়ে দু’জনেই গোসল করতে নামে। এদিকে দীর্ঘসময় বাড়ি না ফেরায় তাদের খোঁজাখুঁজি শুরু করেন স্বজনরা। পরে পানিতে রিয়াদ ও নাহিদের মরদেহ ভেসে উঠলে পরিবারের লোকজন তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুই শিশুকেই মৃত ঘোষণা করেন।

মৃত নাহিদের পিতা শাহ আলমের ধারণা, পা পিছলে পানিতে পড়ে গেলে সাঁতার না জানায় মৃত্যু হয়েছে তাদের। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জালাল উদ্দিন বলেন, বিষয়টি খুবই মর্মান্তিক। মৃত দুই শিশু সম্পর্কে আপন মামা-ভাগ্নে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছে।

এদিকে, সাঁথিয়া উপজেলার হাড়িকাহন গ্রামে আম পাড়তে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে মাদরাসা ছাত্র হাফেজ জেলহক (১৪) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

মৃত নব হাফেজ জেলহকের চাচা আলহাজ্ব আবু হানিফ মন্ডল জানান, বেলা ১১টার দিকে হাড়িয়াকাহন-শিবরামপুর উলুম হাফিজিয়া মাদরাসা মসজিদের ছাদে উঠে আম পাড়ছিল হাফেজ শিশু জেলহক। এ সময় বিদ্যুৎ লাইনের তারে বিদ্যুতায়িত হয়ে সে গুরুতর আহত হয়।

স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে সাঁথিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জেলহককে মৃত ঘোষণা করেন।

সাঁথিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, শিশুটিকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

বিষয়: * পাবনায় পানিতে ডুবে ও বিদ্যুতায়িত হয়ে ৩ শিশুর মৃত্যু