বাড়ি ফাঁকা পেয়ে বাক্‌ ও শারীরিক প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণ

ভূরুঙ্গামারী উপজেলা  প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে বাড়ি ফাকা পেয়ে বাক্‌ ও শারীরিক প্রতিবন্ধী এক তরুণীকে (২১) ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে একজনকে  আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়, (২৬ মে) শুক্রবার বিকেলে উপজেলার তিলাই ইউনিয়নের  পশ্চিম ছাট গোপালপুর এলাকার বাসিন্দা শামসুল হক (৬৫) নামের এক বৃদ্ধ কে আটক  করা হয়েছে।

তরুণীর মা বলেন , শুক্রবার সকালে  আমার বোন মারা গেছে। প্রতিবন্ধী মেয়েকে  বাড়িতে রেখে আমি  বোনের বাড়িতে  যাই। মেয়েকে একা পেয়ে  প্রতিবেশী শামসুল হক আমার  মেয়েকে ধর্ষণ করে।

  প্রতিবেশি বাদশাহ মিয়া ও তোফাজ্জল হক বলেন অনেকদিন থেকে শামসুল   ঐ প্রতিবন্ধী কে  বিরক্ত করতো। বাড়ি ফাকা পেয়ে  ধর্ষণ করে। প্রতিবন্ধীর গোঙরানোর শব্দ শুনে আমরা এসে আপত্তিকর অবস্থায়  ধর্ষক কে আটক করি।  ইউপি চেয়ারম্যান কে খবর দিলে সে তাকে পরিষদে নিয়ে যায়।  চেয়ারম্যান  থানা পুলিশকে খবর দিয়ে  শামসুল কে থানা হেফাজতে পাঠায়।
ইউপি চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান বলেন খবর পেয়ে  আমি  ঘটনাস্থলে  যাই। শামসুল  ধর্ষণের কথা শিকার করলে। আমি  পুলিশ কে খবর দেই। পরে তাকে পুলিশ  আটক করে। 

ভূরুঙ্গামারী  থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নজরুল  ইসলাম  বলেন, ধর্ষক থানায়  স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে তার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দেওয়া হয়েছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

বিষয়: * বাড়ি ফাঁকা পেয়ে বাক্‌ ও শারীরিক প্রতিবন্ধী তরুণীকে ধর্ষণ
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ