আপীলে বৈধতা পেলেন মেয়র প্রার্থী সাংবাদিক মো. আসাদুজ্জামান 

বরিশাল  জেলা  প্রতিনিধিঃ

বাছাইতে বাদ পড়া বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী সাংবাদিক মো. আসাদুজ্জামান আপিলে বৈধতা পেয়েছেন।

গতকাল মঙ্গলবার (২৩ মে২০২৩ ইং) আপিল শুনানি শেষে আজ বুধবার তাঁর মনোনয়নটি বৈধ বলে ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশন।

 ফলে নির্বাচনে অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে এই প্রার্থীর আর কোনো আইনগত বাধা রইল না। বিষয়টি প্রার্থীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট বিপুল চন্দ্র এবং অ্যাডভোকেট আজাদ রহমান  নিশ্চিত করেন।

সিনিয়র সাংবাদিক আসাদুজ্জামান  জানান, বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে অংশ নিতে তিনি মনোনয়নপত্র সংগ্রহ এবং পরবর্তীতে তা যথাযথ প্রক্রিয়ায় জমা দেন। কিন্তু ১৭ মে যাচাই-বাছাইতে তাঁর মনোনয়নটি ক্রটি ধরে বাদ দেওয়া হয়। এবং এক আদেশে সিটি কর্পোরেশনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবির উল্লেখ করেন প্রার্থীর জমা দেওয়া হলফনামায় শনাক্তকারীর নাম-ঠিকানা তুলে ধরেননি। মূলত এই কারণেই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন বিধিমালা ২০১০ এর বিধি ১২ক/১৪ এর বিধান অনুসারে মনোনয়নপত্রটি বাতিল করা করে দেয়।

স্বতন্ত্র প্রার্থী আসাদুজ্জামান জানান, একদিন বাদে অর্থাৎ ১৮ মে এই আদেশের বিরুদ্ধে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের আপিল বিভাগে তিনি ওই আদেশের বিরুদ্ধে মনোনয়নপত্রের বৈধতা চেয়ে আবেদন করেন এবং এতে তিনি হলফনামায় শনাক্তকারীর নাম-ঠিকানা কেনো উল্লেখ করেননি তার স্বপক্ষে বেশকিছু যুক্তি ও ব্যাখ্যা তুলে ধরেন।

এই প্রার্থীর পক্ষে গতকাল মঙ্গলবার বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার অফিসে আয়োজিত আপিল শুনানিতে অংশ নেন বরিশালের দুই আইনজীবী বিপুল চন্দ্র এবং আজাদ রহমান।

আইনজীবীরা সাংবাদিকদের জানান, যাচাই-বাছাইতে সামান্য ত্রুটি ধরে নির্বাচন কমিশন স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নটি অবৈধ বলে ঘোষণা দিলে এর বিরুদ্ধে আপিল করা হয়েছিল। সেই আবেদনটি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের আপিল বিভাগের বিচারক বিভাগীয় কমিশনার আমিন উল আহসান শুনানি শেষে বুধবার বৈধ ঘোষণা করেন। ফলশ্রুতিতে এই প্রার্থীর নির্বাচনে অংশগ্রহণের আর কোনো বাধা নেই।

আপিলে মনোনয়ন বৈধ ঘোষণার পর সাংবাদিক আসাদুজ্জামান বলেন, সাধারণ ভোটারদের বড় একটি অংশের সমর্থন পেয়ে তিনি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হয়েছেন। আগামী ১২ জুন অনুষ্ঠেয় ভোটে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে লড়াই করবেন।’

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

বিষয়: * আপীলে বৈধতা পেলেন মেয়র প্রার্থী সাংবাদিক মো. আসাদুজ্জামান