গাইবান্ধায় ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে একজনের আমৃত্যু কারাদন্ড

গাইবান্ধা : গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলায় শিশু সিনথি আক্তার হত্যা মামলায় আসামী মাজেদুল ইসলাম কাল্টুকে আমৃত্যু কারাদন্ড ও ১ লক্ষ টাকা জরিমানা করেছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল। সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ কে এম শহীদ আহম্মেদ ৮ মার্চ মঙ্গলবার দুপুরে এই রায় দেন।
আমৃত্যু কারাদন্ডপ্রাপ্ত আসামী মাজেদুল ইসলাম কাল্টু গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার গজারিয়া ইউনিয়নের বাউশী  গ্রামের ছায়দার রহমানের ছেলে ।
গাইবান্ধা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল-১ আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি শাহীন গুলশান নাহার রায় প্রদানের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আমৃত্যু কারাদন্ড ও জরিমানা ছাড়াও আলামত গোপন এবং মিথ্যা সাক্ষ্য দেওয়ার অপরাধে দন্ডবিধি ২০১ ধারায় মাজেদুলের আরও পাঁচ বছর কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে। এবং  জরিমানার টাকার মধ্যে ৫০ হাজার সরকারি কোষাগারে এবং ৫০ হাজার টাকা মামলার বাদি পাবেন বলে আদেশ দেওয়া হয়েছে।
মামলার বিবরণে জানা গেছে, গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার গজারিয়া ইউনিয়নের বাউশী গ্রামের সেলিম মিয়ার শিশু কন্যা সিনথী আক্তারকে একই গ্রামের ছায়দার রহমানের ছেলে মাজেদুল ইসলাম কাল্টু ২০১৭ সালের ৩১ আগস্ট অপহরণ করে।
পরে তাকে নিজ বাড়িতে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে  হত্যা করে বাড়ির পাশের পুকুরের কচুরিপানার নিচে লুকিয়ে রাখে। পরে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার কোন সন্ধান পাওয়া যাচ্ছিল না। পরদিন সন্দেহভাজন ব্যক্তির মাধ্যমে পুকুরের কচুরিপানার নিচ থেকে সিনথি আক্তারের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় ওই মেয়ের বাবা সেলিম মিয়া বাদী হয়ে ফুলছড়ি থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।
এব্যাপারে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী শাহীন গুলশান নাহার মুনমুন বলেন, দীর্ঘ শুনানির পর আদালত এ রায় প্রদান করেছেন ।
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
বিষয়: * আমৃত্যু কারাদন্ড * গাইবান্ধায় ধর্ষণ ও হত্যা * নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ