তিন বছর ধরে শিকলেবন্দী রাসেলের জগৎ

 

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি : মানসিক ভারসাম্যহীন কিশোর রাসেল মিয়ার বয়স এখন ২০ বছর। অাদর ও স্নেহ দিয়ে পালিত বড় ছেলেকে তিন বছর ধরে পায়ে লোহার শিকল দিয়ে বেঁধে রেখেছেন অসহায় বাবা-মা। অর্থের অভাবে সঠিক চিকিৎসা করতে পারছেন না তার। সন্তানের চিকিৎসা দরিদ্র বাবার জন্য বিরাট পাহাড়ের মতো বোঝা হলেও বাবার স্নেহের কমতি নেই তার প্রতি।

রাসেল মানসিক প্রতিবন্ধী হওয়ায় যেদিক খুঁশি, ছুটাছুটি করে চলে যায়। বোঝেনা শীত, গরম। রাখতে চায়না গায়ে জামা-কাপড়। হাতের কাছে যা পায় তাই দিয়ে ঢিল ছোড়ে অন্যের দিকে। সন্তান রাসেলের এমন অস্বাভাবিক আচরণে তিন বছর ধরে বাড়ির একটি টিনের ঘরে পায়ে লোহার শিকল দিয়ে বন্ধী করে রেখেছেন। মানসিক ভারসাম্যহীন রাসেল মিয়া কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার যাদুরচর ইউনিয়নের শ্রীফলগাতি গ্রামের আব্দুল হান্নানের ছেলে। তার বাবা যাদুরচর ইউনিয়ন পোস্ট অফিসে মাসিক চার হাজার টাকা সম্মানির অস্থায়ী পোস্ট ম্যান।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, টিনের একটি ঘরে রাসেলের পায়ে লোহার শিকল দিয়ে বেঁধে রাখা হয়েছে। কখনও ঘর থেকে বের হয়, কখনও ঢোকে। আবার কখনও দাঁড়িয়ে থাকছে, কখনও সুয়ে থাকছে। এমন সারাক্ষণ ছুটাছুটি আর চিৎকার-চেঁচামেচির মধ্যে দিয়েই কাটছে রাসেলের জীবন।

রাসেল মিয়ার বাবা আব্দুল হান্নান বলেন, অামার দুই ছেলে। তার মধ্যে রাসেল বড়। রাসেল তিন বছর আগে হঠাৎ করে স্মৃতিশক্তি হারিয়ে মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েন। অভাবের সংসারে যা কিছু ছিল, সব বিক্রি করে সন্তানের চিকিৎসার পেছনে ব্যায় করেছি। কিন্তু কিছুতেই সঠিক চিকিৎসা হয়নি। অর্থের অভাবে চিকিৎসা করতে পারছি না তার। আমিই একমাত্র সংসারের উপার্জনকারী। বসতবাড়ি ছাড়া আর কিছু নেই। ইউনিয়ন পোস্ট অফিসে অস্থায়ী পোস্ট ম্যান হিসেবে মাসিক চার হাজার টাকা সম্মানি পাই । তা দিয়েই চালাতেই হয় পরিবারের চার সদস্যের যাবতীয় খরচ।

তিনি আরও বলেন, টাকার অভাবে সন্তানের চিকিৎসা করতে পারছি না। তাই সবার কাছে সাহায্যের আবেদন করেন তিনি। ঘটনাটি জানার কথা স্বীকার করে যাদুরচর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সরবেশ আলী বলেন, আমরা প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড বরাদ্দ পাই না। এগুলো উপজেলা প্রশাসন করে থাকেন। অামি তাকে সামান্য অর্থিক সহযোগিতা করেছি।

রৌমারী উপজেলা সমাজসেবা দপ্তরের ফিল্ড সুপারভাইজার আব্দুল্লাহ হেল কাফি বলেন, তাকে অামাদের উপজেলা সমাজ সেবা দপ্তর থেকে সামান্য টাকা সহ ওষুধ কিনে দেয়া হয়েছে। তার ভাতার প্রক্রিয়া অলরেডি কমপ্লিট। আশা করি আগামী সপ্তাহ থেকে সে ভাতার অন্তর্ভুক্ত হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
বিষয়: * শিকলেবন্দী রাসেলের জগৎ মানসিক ভারসাম্যহীনকুড়িগ্রাম
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ