কুড়িগ্রামের রৌমারীতে তরুণীর আত্মহত্যার চেষ্টা

 

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রেম করে ভূয়া বিয়ে রেজিস্টারি ফরমে স্বাক্ষার নিয়ে সর্বস্ব লুটে নিয়ে লাপাত্তা দেওয়ায় বিষ পানে আত্মহত্যার চেষ্ট করেছে এক তরুণী। গত ৪ দিন ধরে রৌমারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে ওই তরুণী। এঘটনা ঘটেছে কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার শৌলমারী ইউনিয়নের বাতার গ্রামে।

এ বিষয়ে গত ৮ ফ্রেরুয়ারী রাতে রৌমারী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন নির্যাতিতার বাবা। অভিাযোগ সূত্রে জানা যায়, শৌলমারী ইউনিয়নের ফকিরপাড়া গ্রামের আব্দুল বাতেনের ছেলে ফারুক হোসেন (২৬) এর বিয়ের জন্য গত ৭মাস আগে একই ইউনিয়নের বাতার গ্রামে ওই তরুণীকে দেখতে যান। বৌ হিসেবে উক্ত তরুণীকে ফারুক হোসেনের পছন্দ হলেও তার পরিবারের লোকজন বিয়েতে আপত্তি জানান। পরে ওই তরুনীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন ফারুক হোসেন। একপর্যায়ে বিয়ের ভূয়া রেজিস্ট্রারি ফরমে স্বাক্ষর নেয়।

এরপর তার সাথে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। গত দুই সপ্তাহ আগে ফারুক হোসেনকে তার বাড়িতে বৌ হিসেবে তুলে নেয়ার জন্য চাপ দিলে সে বিয়ের কথা অস্বিকার করে। এঘটনা সহ্য করতে না পেরে গত ৫ ফ্রেরুয়ারী বিকালে বিষ পানে আত্মহত্যার চেষ্টা করে ওই তরুণী।

রৌমারী হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জাহাঙ্গীর আলম বলেন, বর্তমানে ওই তরুণী রৌমারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

রৌমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোন্তাছের বিল্লাহ বলেন, এঘটনায় ওই তরুণীর বাবা বাদি হয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

বিষয়: * রৌমারী থানা আত্মহত্যা কুড়িগ্রাম তরুণীর আত্মহত্যা
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ