ঠাকুরগাঁওয়ে দুই ইউপি নির্বাচনে একটিতে নৌকা অপরটিতে স্বতন্ত্রের জয়

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: সপ্তম ধাপে ইউপি নির্বাচনে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার সর্বশেষ দুইটি নতুন ইউনিয়ন বরগাঁও ও সেনুয়াতে ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ নির্বাচনে বড়গাঁও নৌকার প্রার্থী ফয়জুর রহমান ও সেনুয়াতে স্বতন্ত্র প্রার্থী মতিউর রহমান মতি মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।
সোমবার রাতে উপজেলা নির্বাচন কর্তকর্তা ও উপজেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা রেজাউল করিম  পৃথক দুইটি বার্ত প্রেরণ কাগজে স্বাক্ষর করে বেসরকারি ভাবে তাদের নির্বাচিত ঘোষণা করেন।
স্বাক্ষরিত ওই বার্তা প্রেরণ কাগজে দেখা যায় বড়গাঁও ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী প্রার্থী ফয়জুর রহমান পেয়েছেন ৫৯১৩ ভোট। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু সাঈদ নূর আলম ঘোড়া প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩১৫৯ ভোট এবং ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ, মনোনীত হাত পাখা প্রতীকে প্রার্থী  আব্দুল গফ্ফুর  পেয়েছেন ৪৯১ ভোট।  এদিন ভোট প্রদান করেছেন ৯৩৩৮ জন ভোটার। এর মধ্যে বাতিল হয়েছে ১০২ টি ভোট। ইউনিয়নে মোট ভোটারের সংখ্যা ১১৭৮ জন।
অপরদিকে নতুন সেনুয়া ইউনিয়নে আ.লীগ মনোনিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী নোবেল কুমার সিংহকে পরাজিত করে বিজয়ী হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মতিউর রহমান মতি। তিনি মোটর সাইকেল প্রতীক নিয়ে ২৩২৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছে। তার নিকটতম আ.লীগ মনোনিত প্রার্থী নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ১৯৫৮ ভোট। এছাড়াও নির্বাচনে আরও দুই স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রতিদ্বন্দীতা করেন। এদের মধ্যে মো: আশরাফুল ইসলাম চশমা প্রতীকে পেয়েছেন ১৩৩২ ভোট এবং ঘোড়া প্রতীক নিয়ে মতিয়ার রহমান পেয়েছেন ১৮১ ভোট। এদিন ভোট প্রদান করেন ৫৭৯৬ জন ভোটার। এর মধ্যে বাতিল হয়েছে ১৩৬ ভোট। এই ইউনিয়নে মোট ভোটারের সংখ্যা ৬৮৮৫ জন।
এই দুই ইউনিয়নের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় গত ৭ ফেব্রুয়ারি । দুই ইউনিয়নে সকাল আটটায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। দুই ইউপিতেই পুরুষের চেয়ে নারী ভোটা‌রের উপস্থিতি অনেক বেশি লক্ষ্য করাগেছে। আনন্দমুখোর পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে শুনে এদিন ছেলে ও ভাতিজার কাঁধে ভর দিয়ে  ভোটকেন্দ্রে ভোট দিতে  আসেন শতবর্ষী  বৃদ্ধ হাফিজ উদ্দীন। এছাড়াও সব বয়সী ভোটারদের ভোটার লাইনে দাড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। নির্বাচনে প্রশাসনের তৎপরতা ছিল চোখে পড়ার মতো। প্রত্যেকটি ভোটকেন্দ্র পর্যবেক্ষণ করেছেন ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক মাহবুবুর রহমান ও জেলা পুলিশ সুপার মোহম্মদ জাহাঙ্গীর আলম।
এছাড়াও সাধারণ ভোটারদের দাবি ভোটের মাঠে যথাযোগ্য ভূমিকা পালন করেছেন, বিজিবি, পুলিশ, র‌্যাব, আনসার ও সংবাদকর্মীগণ।
এর মধ্যে দু একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনাও ঘটেছে। বেলা বারোটার দিকে সেনুয়ার মোলানখুরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে জাল ভোট দিতে এসে ৬  মাসের  বিনাশ্রম কারাদন্ড পান ওই গ্রামের অনুকূল রায়ের ৩৫ বছর বয়সী ছেলে মতি রায়। এ কারাদন্ড প্রদান করেন জেলার প্রথম শ্রেনির ম্যাজিস্ট্রেট ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আলাউদ্দিন।
এরপর দুপুর পৌনে দুইটার দিকে একই ইউনিয়নের চৌধুরী হাট ভোট কেন্দ্রের বাইরে একটি  বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে বিকট শব্দ হওয়ায় ভোটারদের মাঝে আতঙ্ক ছড়ায়। তবে পুলিশ মনে করে ওই আওয়াজ কোন চকলেট বোমার হতে পারে। এ ঘটনায় পুলিশ আরও তৎপরতা বাড়ায় এবং ভোটাররা এই কেন্দ্রে শেষ সময় পর্যন্ত ভোট প্রদান করেন।  বিকাল ৩ টায় এই ইউনিয়নের আরেক খারুয়াডাঙ্গা দ্বী-মুখী উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে বহিরাগতরা বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি করলে পুলিশ তাদের ধাওয়া করে এবং লাঠিপেটা করে। পরে একসময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। অপরদিকে বড়গাঁও ইউনিয়নে তেমন কোন বিচ্ছিন্ন ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।
সেখানকার ভোটাররা জানান, তারা শান্তিপূর্ণভাবে ভোট প্রদান করতে পেরে আনন্দিত।  পরে ভোট গ্রহণ শেষে কেন্দ্রে ভোট গণনার পর সদর উপজেলার হল রুমে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা বেসরকারি ভাবে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন।
উল্লেখ্য যে, গত ২০২০ সালের ৫ নভেম্বর  সদর উপজেলার ৪ নং বড়গাঁও ইউনিয়ন পরিষদকে ভেঙে  সেনুয়া ও বরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ নামে নতুন দুইটি ইউনিয়ন পরিষদ গঠন করা হয়।
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
বিষয়: * নৌকা স্বতন্ত্রের জয় ইউপি নির্বাচন ঠাকুরগাঁওয়ে
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ