নওগাঁয় নিজের পুরুষাঙ্গ কেটে ফেললেন কলেজ ছাত্র

 

 

 

রহমতউল্লাহ

নওগাঁ

 

নওগাঁয় নিজের পুরুষাঙ্গ কেটে ফেললেন এক কলেজ ছাত্র। সদর উপজেলার শৈলগাছী ইউনিয়ন এর চকচপাই গ্রামে সোমবার দুপুর ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহত কলেজ ছাত্র চকচপাই গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে সৈকত ইসলাম ( ২৫)। সে নওগাঁ সরকারি কলেজের ডিগ্রি শেষ বর্ষের ছাত্র বলে যানা যায়।

 

সৈকত ইসলামের খালাত ভাই বলেন ‘সোমবার সকালের খাবার খেয়ে তার নিজের রুমে ঘুমিয়ে ছিল সৈকত। দুপুর ১টার দিকে টয়লেটে গিয়ে ব্লেড দিয়ে নিজের পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলে। কিছুক্ষণ পর তার চিৎকারে পরিবারের সদস্যরা এসে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে নওগাঁ  জেনারেল হাসপাতালে নেওযা হলে-সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসকরা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।  যানা যায় -দুপুর আড়াইটার দিকে বগুড়া থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয় তাকে।

 

তার কালত ভাই আরাফাত আরও বলেন, ‘যতদূর জানি সৈকত দুই মাস থেকে মানসিকভাবে অসুস্থ। এছাড়া গত ১০-১৫দিন থেকে কারো সঙ্গে কোনো কথা বলে না। এমনকি বাড়ি থেকে বেরও হয় না। এখন কেন এমনটা করলো বা অন্য কোনো কারণ আছে কি-না। সেটা এখন বলা যাচ্ছে না।’

 

নওগাঁ  জেলারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. নাজমা সুলতানা মনিকা বলেন , ‘সৈকত এর পুরুষাঙ্গ শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এ জন্য অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়েছে। রোগীর অবস্থা খুব গুরুতর। হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বগুড়াতে পাঠানো হয়। বগুড়া থেকে ঢাকাতে পাঠানো হয়েছে বলে জানতে পেরেছি।’

 

এ বিষয়ে নওগাঁ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম জুয়েল  জানান, ‘বিষয়টি আমার জানা নেই। কি কারণে ওই কলেজ ছাত্র তার পুরুষাঙ্গ কেটে ফেললো! এখন পর্যন্ত কেউ এ বিষয়ে অভিযোগ করেনি। তার পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ হয়নি। অভিযোগ হলে আমরা বিষয়টি তদন্ত করবো।’

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
বিষয়: * নওগাঁ * পুরুষাঙ্গ * পুরুষাঙ্গ কেটে
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ