শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান খোলার পর বিদ্যালয়ে আসছে না প্রাথমিকের ২৩ ও মাধ্যমিকের ৩৫ ভাগ শিক্ষার্থী

করোনায় স্কুল খুলেছে দেড় বছর পর। কিন্তু প্রাথমিক পর্যায়ে ২৩ ভাগ ও মাধ্যমিকে ৩৫ ভাগ শিক্ষার্থী স্কুলে আসছে না। বিষয়টি ভাবিয়ে তুলেছে কর্তৃপক্ষকে। কারণ খুঁজতে কাজ শুরু করেছে দুটি মন্ত্রণালয়। এরপর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্টরা।

দেড় বছর পর ১২ সেপ্টেম্বর খুলেছে স্কুল। সীমিত পরিসরে ক্লাসও চলছে। কিন্তু অনেক ক্লাসে শিক্ষার্থী উপস্থিতি কমেছে।

রাজধানীর নিলক্ষেতের শহীদ বুদ্ধিজীবী ড. আমিন উদ্দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এই স্কুলে ৫ম শ্রেণির ৯৫ ভাগ শিক্ষার্থী ক্লাসে আসছে কিন্তু প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় ও ৪র্থ শ্রেণিতে আসছে না ৩৫ ভাগ।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন জানিয়েছেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গড়ে ২৩ ভাগ শিক্ষার্থী স্কুলে আসছে না। কেন আসছে না তা খোঁজা হচ্ছে।

শহীদ বুদ্ধিজীবী ড. আমিন উদ্দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রীনা পারভীন বলেন, অনেক অভিভাবক ভয়ে শিশুকে স্কুলে পাঠাচ্ছেন না।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, ক্লাসে আসছে না ৩৫ ভাগ শিক্ষার্থী। ধারণা করা হচ্ছে, অনেক শিক্ষার্থী বাল্যবিবাহ ও শিশু শ্রমের শিকার।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক সৈয়দ গোলাম ফারুক বলেন, অনেকে স্কুলে না আসলেও ঝরে পড়েছে সেটা বলা যাবে না। কত শতাংশলেখাপড়া ছেড়েছে সেটি বের করতে আরও সময় লাগবে বলে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
বিষয়: * শিক্ষা প্রতিষ্ঠান * শিক্ষা মন্তণালয় * স্কুল * হাই-স্কুল