আফগানিস্তানে অস্থিরতার জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে দায়ী রাশিয়ার

আফগানিস্তানে বিদেশি সেনা প্রত্যাহার শুরুর পর থেকেই দেশটিতে তৎপর হয়ে ওঠে তালেবান। সেনা প্রত্যাহারের সুযোগ কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন অঞ্চল দখলের চেষ্টা চালাচ্ছে তালেবান। সেই জেরে প্রায় প্রতিদিনই আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর সংঘর্ষ হচ্ছে।

বাড়তে থাকা যুদ্ধ সংঘাতের মাঝেই আফগানিস্তানে শান্তি ফিরিয়ে আনা সম্ভব বলে মনে করেন দেশটির হাই কাউন্সিল ফর ন্যাশনাল রিকনসিলিয়েশনের চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আব্দুল্লাহ। তার জন্য উভয় পক্ষের সম্মিলিত প্রচেষ্টা ও কার্যকরী পদক্ষেপ প্রয়োজন বলে জানান তিনি।

এদিকে, আফগানিস্তানে সৃষ্ট রাজনৈতিক অস্থিরতার জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে দায়ি করছে রাশিয়া। রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলছে, আফগানিস্তান থেকে তাড়াহুড়ো করে সেনা প্রত্যাহারের কারণেই দেশটির স্থিতিশীলতার অবনতি হয়েছে। এ সময় মার্কিন বাহিনীর দীর্ঘদিনের এই অভিযান পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে বলেও সমালোচনা করেন তিনি।

আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতির জন্য পাকিস্তানকে দোষারোপ করা অবিচার বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। পাশাপাশি আফগানিস্তানে তার সরকার তালেবানকে মদত দিচ্ছে, এমন অভিযোগও অস্বীকার করেন ইমরান।

এদিকে সেনা প্রত্যাহারের কারণে আফগান নারীদের ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন মার্কিন সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ ডাব্লিউ বুশ। তিনিই প্রথম ২০০১ সালে আফগানিস্তানে সেনা পাঠায়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন