ভারতে ৪৪ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন শনাক্ত, মৃত্যুও ৪ হাজারের নিচে

 

 

ভারতে ৪৪ দিনের মধ্যে সবচেয়ে কম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে বৃহস্পতিবার। এদিন মৃত্যুও কিছুটা কমেছে। এই সময়ে মারা গেছে ৩ হাজার ৬৬০ জন।

কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে এনডিটিভিসহ একাধিক গণমাধ্যম শুক্রবার সকালে এতথ্য জানিয়েছে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে পরিসংখ্যান অনুসারে, গত ২৪ ঘণ্টায় অর্থ্যাৎ এক দিনে দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৮৬ হাজার ৩৬৪ রোগী। ৪৪ দিন পর দেশের দৈনিক সংক্রমণ এতটা কম হলো। আর মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৬৬০ জনের।

গত দুই সপ্তাহ ধরে ভারতে যত জন প্রতিদিন কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। তার থেকে বেশি রোগী প্রতিদিন সুস্থ হয়ে উঠছেন। এর জেরে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ধারাবাহিকভাবে কমছে।

দুই সপ্তাহ আগে দেশটিতে সক্রিয় রোগী ছিল ৩৭ লাখের বেশি। এখন তা কমে হয়েছে ২৩ লাখ ৪৩ হাজার ১৫২ জন। এর সঙ্গে দেশে সংক্রমণের হারও আগের তুলনায় কমেছে। গত ৪ দিন দেশে সংক্রমণের হার রয়েছে ১০ শতাংশের নিচে।

সংবাদ মাধ্যমগুলো বলছে, ভারতে অধিকাংশ রাজ্যে সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসতেই দেশে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা কমেছে। দিল্লি, মধ্যপ্রদেশ, গুজরাট, ছত্রিশগঢ়, রাজস্থান, হরিয়ানা, বিহার, ঝাড়খণ্ড, উত্তরপ্রদেশের মতো রাজ্যেগুলিতে সংক্রমণ অনেকটা কমেছে।

ওডিশা, পাঞ্জাব, আসামে আগের থেকে কমলেও সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে তা বলা যাবে না। পশ্চিমবঙ্গে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ১৩ হাজারের বেশি, অন্ধ্রপ্রদেশে ১৬ হাজারের বেশি। মহারাষ্ট্রে আগের থেকে অনেক কমে দৈনিক সংক্রমণ নেমেছে ২১ হাজারের ঘরে।

কর্নাটক এবং কেরলেও সংক্রমণ ২৫ হাজারের কম। কিন্তু তামিলনাড়ুতে এখনও প্রতিদিন আক্রান্ত হচ্ছে ৩০ হাজারের বেশি। গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে আক্রান্ত হয়েছে ৩৩ হাজার ৩৬১ জন।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ