ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের করোনা রোগী হাসপাতাল থেকে পালানোর ৬ দিন পর আটক

চাঁদপুর জেলা প্রতিনিধি : 
করোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে যশোর হাসপাতাল থেকে পালানোর ৬ দিন পর ইউনুস গাজীকে (২৮) চাঁদপুর জেলা শহরের বিপনীবাগ এলাকা থেকে উদ্ধার করেছে ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ। পরে তার সাথে থাকা তার মা , ফুপু, বোনসহ সকলকে আইসোলেশনে ভর্তি করা হয়। এর মধ্যে ফুপু হাজেরা বেগমেরও করোনা পজেটিভ হয়েছে।
জানা গেছে, ভারত থেকে চিকিৎসা শেষে ফেরত আসা ইউনুস গাজী প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টেইনে থাকাবস্থায় তার শরীরের ভারতীয় করোনা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত হয়। পরে তাকে যশোরের একটি হাসাপাতালে ভর্তি করা হলেও গত ১৩ মে হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি থাকাবস্থায় সে পালিয়ে যায়। পালিয়ে যাওয়ার পর থেকে সে তার নিজ বাড়ি চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলায় না এলেও ঢাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় ঘোরাফেরা করতে থাকে।
একপর্যায়ে সে চাঁদপুরে এলে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহীদ হোসেনের নেতৃত্বে বুধবার (১৯ মে) রাতে থানা পুলিশ চাঁদপুর শহরের বিপনীবাগ এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। একই সাথে তার সাথে থাকা ইউনুস গাজীর মা পেয়ারা বেগম (৫৫), ফুপু হাজেরা বেগম (৬০) ও ফুপাতো বোন জেসমিন আক্তারকে (৪০) নিয়ে পুলিশি পাহারায় ফরিদগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। এরমধ্যে বৃহস্পতিবার (২০ মে) করোনা টেস্ট রিপোর্টে ফুপু হাজেরা বেগমের করোনা পজেটিভ আসায় তাকে শুক্রবার (২১ মে) চাঁদপুর সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে পাঠানো হয়েছে। এর আগে ভারত থেকে চিকিৎসা নিয়ে ফেরা ইউনুস গাজী ও তার ভাই ইউছুফ গাজী প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টেইনে থাকাবস্থায় ইউছুফ গাজী মারা যান।
এদিকে ফরিদগঞ্জে ভারত ফেরত আরও দুজন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টেইনে শেষে করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ হওয়ায় তারা বাড়ি ফিরছেন।
এ ব্যাপারে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহীদ হোসেন ইউনুস গাজীকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে শুক্রবার (২১ মে) দুপুরে জানান, সে ভারতীয় করোনা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত থাকা অবস্থায় পালিয়ে যাওয়ার পর থেকে তাকে অনেক খোঁজাখুঁজি করার পর অবশেষে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন