রক্তাক্ত ফিলিস্তিন : লডে জরুরি অবস্থা জারি

 

ইসরায়েল হামাসের মধ্যে উত্তেজনা চরমে পৌঁছেছে। মঙ্গলবার (১১ মে) ছিটমহল থেকে রকেট ছোঁড়ার পরে বেশ কয়েকটি অঞ্চলকে লক্ষ্য করে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী গাজা উপত্যকায় বোমা হামলা চালালে পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ নেয়।

এমন পরিস্থিতিতে ইসরায়েলের লড শহরে জরুরি অবস্থা জারি করেছে দেশটির সরকার। বুধবার (১২ মে) ভোরে আলজাজিরা এ খবর জানিয়েছে।

এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, তেল আবিবের দক্ষিণের ওই শহরের সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বেনজামিন নেতানিয়াহু প্রতিরক্ষা ও জননিরপত্তামন্ত্রীসহ শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করেছেন এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে কঠোরভাবে পরিস্থিতি মোকাবিলা করার নির্দেশ দিয়েছেন।

আলজাজিরার প্রতিবেদক হ্যারি ফকেট জানান, শহরে সহিংসতার বিষয়গুলো স্পষ্টভাবে ফুটে উঠেছে। রমজান মাসে সহিংসতার স্ফুলিঙ্গ জ্বলজ্বল করছে। চারদিকে আগুন ছড়িয়ে পড়ছে, যা খুব বিপজ্জনক।

এর আগে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে হামাস নেতা ইসমাইল হানিয়া বলেন, ইসরায়েল যদি আন্দোলন বাড়াতে চায়, তবে এর মোকাবিলা করতে আমরা প্রস্তুত। আর ইসরায়েল যদি সংঘাত থামাতে চায়, তবেও আমরা প্রস্তুত।

পরিস্থিতি ‘পূর্ণাঙ্গ যুদ্ধের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে’ উল্লেখ করে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মধ্যপ্রাচ্য শান্তি প্রক্রিয়া বিষয়ক জাতিসংঘের বিশেষ সমন্বয়ক টর ভেনেসল্যান্ড। টুইট বার্তায় তিনি বলেন, অবিলম্বে এ সংঘাত বন্ধ করো।

তিনি বলেন, চলমান এ অশান্তি বন্ধে উভয় পক্ষের নেতাদের ভূমিকা প্রয়োজন। গাজায় চলমান এ যুদ্ধে সাধারণ মানুষকে চরম মূল্য দিতে হচ্ছে। জাতিসংঘ সবদিকেই শান্তি পুনরুদ্ধারে কাজ করছে। এখনই সহিংসতা বন্ধ করা জরুরি।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন