আফগানিস্তান ছাড়ছে মার্কিন সেনারা

 

আফগানিস্তান থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা পুরোপুরি প্রত্যাহারের কাজ শুরু হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন শীর্ষ এক মার্কিন কমান্ডার। এর মধ্য দিয়ে দেশটিতে শেষ হতে চলেছে দীর্ঘ প্রায় ২০ বছরের যুদ্ধ।

আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন কোয়ালিশনের প্রধান জেনারেল অস্টিন স্কট মিলার কাবুলের মার্কিন সামরিক সদরদপ্তরে এক সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন, “আমার কাছে এখন বেশকিছু নির্দেশ রয়েছে।”

“আমরা সুশৃঙ্খলভাবে আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার করব। আর এর মানে হচ্ছে, সামরিক বিভিন্ন স্থাপনা ও সংশ্লিষ্ট সরঞ্জাম আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর কাছে হস্তান্তর করা।”

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ঘোষণা দিয়ে বলেছিলেন, আগামী ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যেই আফগানিস্তান থেকে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করা হবে। তার এই ঘোষণার প্রায় দু’সপ্তাহ পর জেনারেল মিলার সেনা প্রত্যাহার প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার কথা জানালেন।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে জঙ্গি হামলার জেরে আফগানিস্তানে সামরিক অভিযান শুরু করেছিল যুক্তরাষ্ট্র। দীর্ঘ এই যুদ্ধের ২০ বছর পূর্তির সময়ের মধ্যেই আফগানিস্তান থেকে সব মার্কিন সেনা সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

গতবছর তালেবানের সঙ্গে শান্তিচুক্তি অনুযায়ী যুক্তরাষ্ট্র ও আন্তর্জাতিক বাহিনীর সেনাদের ১ মে থেকে আফগানিস্তান ছাড়ার কথা। তবে যুক্তরাষ্ট্র এরই মধ্যে পাততাড়ি গোটাতে শুরু করেছে। আফগানিস্তানে ছোট ছোট ঘাঁটিগুলো যুক্তরাষ্ট্র গত বছর থেকেই বন্ধ করে দিতে শুরু করেছে।

আফগানিস্তানে আছে প্রায় আড়াই হাজার মার্কিন সেনা এবং প্রায় ৭ হাজার নেটো ও মিত্রবাহিনীর সেনা। মার্কিন সেনাদের সঙ্গে সঙ্গে এই সেনাদেরও আফগানিস্তান ছেড়ে যাওয়ার কথা রয়েছে।

নিউজিল্যান্ড মে মাসে তাদের সেনা প্রত্যাহার করে নেওয়ার পরিকল্পনা করেছে। আর অস্ট্রেলিয়া যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সেপ্টেম্বরে তাদের সেনা প্রত্যাহারের পরিকল্পনা করেছে।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ