প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে দায়সারা আয়োজন, শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ 

করোনা পরবর্তী পাঁচ বছর ধরে শুধুমাত্র কেক কাটা ও পতাকা উত্তলনের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করছে বঙ্গবন্ধু
শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরবিপ্রবি) প্রশাসন।
সোমবার (৮ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৩ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কেক কাটা ও পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দিনটি উদযাপন করা হয়। দায়সারাভাবে এই প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।
শিক্ষার্থীরা জানান, “অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বিভিন্ন ধরনের জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠান আয়োজনের পাশাপাশি বিভিন্ন সেমিনার , বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে শিক্ষার্থীদের ভাবনা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সহ বৃক্ষ রোপন কর্মসূচি পালন করে থাকে। কিন্তু বশেমুরবিপ্রবি প্রশাসন বিগত পাঁচ বছর ধরে পতাকা উত্তোলন বা কেক কাটা ছাড়া তেমন কোনো অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে না।
আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষার্থী সাকিব বলেন, “একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বা প্রতিষ্ঠানের প্রধান উৎসব হলো তার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। যে দিনটা প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয় উৎসবের মধ্যে পালন করে।  কারণ এর মাধ্যমে তার পরিচয় ফুটে উঠে। অন্য ক্যাম্পাস গুলো বিভিন্ন আয়োজন থাকলেও আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ব্যর্থতার জন্য এই দিনটা আমরা উপভোগ করতে পারি না। প্রশাসন বিভিন্ন অজুহাত দিয়ে গত ৫ বছর ধরে দায়সারা ভাবে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করে। আমি মনে করি এর মাধ্যমে প্রশাসনের চরম ব্যর্থতার পরিচয় প্রকাশ পেয়েছে “।
এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড.এ.কিউ.এম. মাহবুব বলেন,” এ বছর আমরা ভালোভাবে পালন করতে চেয়েছিলাম কিন্তু শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের কর্মবিরতির জন্য সম্ভব হয়নি। তবে আমরা পতাকা উত্তোলন ও কেক কেটেছি। বিগত বছর গুলোতে হয়নি এটা সবার দোষ আছে।”
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

বিষয়: * উদযাপন * প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী * বঙ্গবন্ধু
সর্বশেষ সংবাদ