উপজেলা পরিষদ নির্বাচন মনিরুলের আনারসকে ঠেকাতে মাঠে সাবেক তিন এমপি

বেনাপোল প্রতিনিধি:
যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা। পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তিনজনই এবার চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন। এরমধ্যে আনারস প্রতীক নিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম, ঘোড়া প্রতীক পেয়েছেন ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম রেজা ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লুবনা তাক্ষী দোয়াত-কলম প্রতীক নিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন। অপর প্রার্থী মোটরসাইকেল প্রতীকের উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি রেজাউল হোসেনকে প্রচারণায় দেখা যায়নি।
উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম স্থানীয় বর্তমান সংসদ সদস্য ডাক্তার তৌহিদুজ্জামান তুহিনের ‘আশীর্বাদপুষ্ট’ হয়ে কিছুটা ফুরফুরে অবস্থায় থাকলেও ছাড় দিতে নারাজ অপর দুই প্রার্থী সেলিম রেজা ও লুবনা তাক্ষী। নানা ছকে ভোটের মাঠ দখলে মনিরুল শিবিরে আঘাত হানার চেষ্টা করছেন তারা। এরই ফলপ্রসুতে মাঠে নেমেছেন স্থানীয় সাবেক তিন সংসদ সদস্য। ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী সেলিম রেজার পক্ষে শুরু থেকেই মাঠে রয়েছেন সাবেক সংসদ সদস্য মেজর জেনারেল (অব.) ডাক্তার নাসির উদ্দিন। অপর সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম মনির উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম মুকুল ও সাধারণ সম্পাদক মুছা মাহমুদকে সঙ্গে নিয়ে এ শিবিরে যোগ দিয়েছেন। এদিকে সেলিমের ঘোড়া প্রতীকের পক্ষে একাত্মতা ঘোষণা মাঠে নেমেছেন কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি আবদুস সালাম (ভিপি সালাম)।
অপরদিকে দোয়াত-কলমের প্রার্থী ভাতিজি লুবনা তাক্ষীকে সঙ্গে নিয়ে গণসংযোগ করছেন আরেক সাবেক সংসদ সদস্য, সাবেক বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম। তাক্ষীকে ভোট দিতে নিজ বলয়ের নেতাকর্মীদের নিয়ে একাধিকবার মিটিং করেছেন তিনি। নির্বাচনী মাঠে রফিকুল পরিবারের সদস্যদের অংশগ্রহণ করতে দেখা গেছে। ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী যুবলীগ নেতা সেলিম রেজা বলেন, আমি উপজেলা আওয়ামী লীগের মূলধারার সঙ্গে রয়েছি। উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ের আওয়ামী লীগের সকল নেতৃবৃন্দ সাবেক দুই সংসদ সদস্যকে সঙ্গে নিয়ে আমার ঘোড়া প্রতীকের পক্ষে ঐক্যবদ্ধ। নির্বাচনে শতভাগ ঘোড়া প্রতীকের জয় হবে।
আনারস প্রতীকের প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম বলেন, আমার ৪৫ বছরের রাজনৈতিক জীবনে মানুষের সুখে দুঃখে পাশে থেকেছি। গত উপজেলা নির্বাচনে জনসাধারণ ভালোবেসে আমাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করেছে। এবারও তারা আমাকে বিজয়ী করবে। সাধারণ মানুষ সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজদের চায় না। আনারস মার্কার জয় হলে বিজয়ী হবে জনতা। এদিকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে শক্ত অবস্থানে রয়েছেন চশমা প্রতীকের প্রার্থী সাংবাদিক হিসেবে পরিচিত সৈয়দ ইমরানুর রশীদ, তার প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে তালা প্রতীক নিয়ে মাঠে গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন পৌর যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক কামরুজ্জামান মিন্টু। পাশাপাশি টিউবওয়েল প্রতীক নিয়ে লড়াই করবেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ইদ্রিস আলী বিশ্বাস।
অপরদিকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়াই করবেন চার প্রার্থী। এরা হলেন, যশোর জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ফুটবল প্রতীকের সাহানা আক্তার, পদত্যাগকৃত ঝিকরগাছা পৌরসভার নারী কাউন্সিলর কলস প্রতীকের জেসমিন সুলতানা, হাঁস প্রতীকের আমেনা খাতুন ও পদ্ম ফুল প্রতীকের আছিয়া বেগম। তফশিল অনুযায়ী আগামী ২১ মে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে ঝিকরগাছা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

বিষয়: * উপজেলা পরিষদ নির্বাচন
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ