বরিশালে সিটি  নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাহারের ঘোষনা বিএনপি প্রার্থীদের

বরিশাল জেলা প্রতিনিধি ঃ

বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ নিতে যাওয়া দুজন বিএনপি নেতা ও যুবদলের এক নেতা মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেওয়ার ঘোষণা দিযেছেন। তারা ইতোমধ্যে নিজেদের ফেসবুক আইডিতে এ সংক্রান্ত পোস্টও করেছেন।

বরিশাল মহানগর বিএনপি নেতাদের মনোনয়ন প্রত্যাহারের ঘোষাণায় আনুষ্ঠানিক ভাবে বিবৃতি দিয়ে  অভিনন্দন  জানিয়েছেন  সাংগঠনিক ইউনিটের শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা। একই সাথে বাকি যারা মনোনয়ন সংগ্রহ করে নির্বাচনে অংশ নিতে যাচ্ছেন তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আহ্বান করা হয়েছে। অন্যথায় সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেওয়ার কথা বলা হয়েছে ওই বিবৃতিতে।

 

গত ১৭/৫/২০২৩ ইং বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মহানগর বিএনপির সদস্য (দপ্তর দায়িত্বপ্রাপ্ত) জাহিদুর রহমান রিপন স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। যেখানে বলা হয়, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) বর্তমান নিশিরাতের ভোট চোর ফ্যাসিস্ট সরকারের অধীনে প্রহসনের নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে না। বর্তমানে বিএনপি নির্দলীয়-নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনসহ ১০ দফা দাবি বাস্তবায়নের আন্দোলনে রয়েছে।

 

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, দীর্ঘদিনের নির্বাচিত সাবেক সফল কাউন্সিলররা এবং নির্বাচনে আগ্রহী নেতৃবৃন্দ যারা দীর্ঘদিন যাবৎ জনগণের সেবায় নিয়োজিত আছেন তারা দলের সিদ্ধান্তের প্রতি সম্মান দেখিয়ে প্রহসনের নির্বাচন বর্জন করেছেন। এদিকে ১৯ নং ওয়ার্ডের সাবেক কমিশনার ও মহানগর বিএনপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট শাহ আমিনুল ইসলাম আমিন এবং ২২ নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর ও মহানগর বিএনপি’র ১ নং সদস্য আ ন ম সাইফুল আহসান আজিম আসন্ন বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ২০২৩ কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করার ঘোষণা দেওয়ায় তাদের সবাইকে অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানিয়েছেন বরিশাল মহানগর বিএনপি’র আহ্বায়ক মনিরুজ্জামান খান ফারুক ও সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট মীর জাহিদুল কবির জাহিদ।

 

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে প্রার্থী হওয়ায় বিএনপির একাধিক নেতাকে দল থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করার প্রভাব বরিশালেও পড়েছে বলে মনে করছেন স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ। তাই বরিশালে শুধু মহানগর বিএনপির দুই নেতাই নয়, ২২ নম্বর ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া জেলা যুবদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাবিবুল্লাহও ফেসবুক স্টাটাসে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন।

 

হাবিবুল্লাহ নিজের ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, বরিশাল সিটি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার জন্য আমি মনোনয়নপত্র দাখিল করি। কিন্তু দল সিদ্ধান্ত দিয়েছে নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করার জন্য। যেহেতু আমি যুবদলের পদে আছি তাই দলের আদেশ অমান্য করে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা আমার পক্ষে আত্মঘাতী সিদ্ধান্তের সামিল। তাই ওয়ার্ডবাসীর কাছে আন্তরিক কৃতজ্ঞতার সঙ্গে ভারাক্রান্ত হৃদয়ে আমি দলের সিদ্ধান্তকে সম্মান জানিয়ে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

 

এ বিষয়ে মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব কাউন্সিলর জাহিদুল করিম জাহিদ বলেন, যারা নির্বাচন থেকে সরে এসেছেন তাদের ধন্যবাদ। আরা যারা এখনও মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি, তাদের দলের সিদ্ধান্ত মেনে প্রত্যাহারের অনুরোধ জানাই।

 

বিভিন্ন ওয়ার্ডে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আসন্ন নির্বাচনে পদস্থ ১০ বিএনপি নেতা মনোনয়ন সংগ্রহ ও জমা দিয়েছেন। এছাড়া বিএনপির সাবেক নেতা এবং বিএনপি ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতাদের পরিবার থেকে আরও ৯ জনের মতো মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমা দিয়েছেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

বিষয়: * বরিশালে সিটি  নির্বাচন
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ