জয়পুরহাটে এসে এবার প্রেমের টানে বিয়ে করলেন শ্রীলঙ্কান যুবক

 

আঃ রাজ্জাক জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃ

 

এবার প্রেমের টানে শ্রীলঙ্কা থেকে জয়পুরহাটে এসে বিয়ে করেছেন শ্রীলংকান নাগরিক রওশন মিঠুন (৩৩) নামে এক যুবক। বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) জেলা জয়পুরহাট নোটারি পাবলিকের কার্যালয়ে এফিডেফিটের মাধ্যমে এ বিয়ের ঘোষণা দিলেও গত বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) ইসলাম ধর্মানুসারে এ বিয়ে হয়।

 

কনে জয়পুরহাটের সদর উপজেলার দোগাছী ইউনিয়নের উত্তর পাথুরিয়া গ্রামের শাহাদুল ইসলামের মেয়ে রাহেনা বেগম (৩৫)

 

জানা গেছে, ২০১৪ সালে জর্ডানে গিয়ে একটি গার্মেন্টসে কোয়ালিটি পদে চাকরি করতেন রাহেনা বেগম। ওই কোম্পানির সুপাইভাইজার পদে ছিলেন শ্রীলংকার মাকারার গেলীর এলাকার সিয়ানার ছেলে রওশন মিঠুন। সেখানেই তাদের পরিচয়, আর পরিচয়ের সূত্রে ধরেই প্রেম। গত দেড় বছর আগে ওই যুবক তার নিজ দেশে ফিরলেও জয়পুরহাটের রাহেনা দেশে ফিরেন এ বছরেই। আর সম্প্রতি শ্রীলংকা থেকে জয়পুরহাটে এসে রাহেনা বেগমকে বিয়ে করেছেন রওশন মিঠুন।

 

কনে রাহেনা বেগম বলেন, ‘চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে নিজ দেশে ফিরে আসি। ফোনের মাধ্যমে আমাদের যোগাযোগ থাকে। একদিন সুদূর শ্রীলঙ্কা হতে ঢাকা বিমানবন্দরে আসেন রওশন মিঠুন। পরে আমার বাড়িতে নিয়ে আসি। আমার পিতা এলাকার মৌলভী দিয়ে এক লাখ টাকা মোহর ধার্য করে আমাদের বিবাহ সু-সম্পন্ন করে দেন। এর মাধ্যমে আমাদের প্রেম বিয়েতে রূপ নিয়েছে। আমাদের জন্য সবাই আশীর্বাদ করবেন। আমরা যেন সারাজীবন একসঙ্গে থাকতে পারি।’

 

বর রওশন মিঠুন বলেন, ‘কর্মরত অবস্থায় রাহেনা বেগমকে খুব পছন্দ করতাম। নিজে বাংলাদেশে (জয়পুরহাট) এসে পরিবারের সম্মতিতে তাকে (রাহেনা বেগম) বিয়ে করেছি। এ দেশে (বাংলাদেশ) নাগরিক হয়ে থাকতে চাই। আমি বাংলাদেশকে ভালোবাসি।’

 

বিষয়টি নিশ্চিত করে জয়পুরহাট জজ কোর্টের আইনজীবী মোহাম্মদ ফরিদুজ্জামান বলেন, ‘এ ব্যাপারে গতকাল বৃহস্পতিবার একটি এফিডেভিট (বিবাহ ঘোষণা) করা হয়েছে। তবে একই ধর্মের হওয়ায় তেমন কোনো আইনি বাধা নেই।’

জয়পুরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘শ্রীলংকান নাগরিক জয়পুরহাটে এসে এক মেয়েকে বিয়ে করছেন বলে আমাদের কাছে খবর এসেছে।’

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
বিষয়: * প্রেমের টানে শ্রীলঙ্কা থেকে জয়পুরহাটে এসে বিয়ে
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ