গাইবান্ধায় ভাইস চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

গাইবান্ধা : গাইবান্ধায় বিধবা, প্রতিবন্ধী, বয়স্ক ভাতা কার্ড করে দেওয়ার নামে অর্থ আত্মসাত ও ব্লাকমেইল করে টাকা নেয়ার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেছে এক অসহায় চা দোকানী নারী।
শনিবার (১৯ মার্চ) বিকেলে প্রেসক্লাব গাইবান্ধায় সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে লিখিত অভিযোগ পাঠ করেন ভুক্তভোগীর ভাগিনা লিখন মিয়া। ভুক্তভোগী ওই নারীর নাম মুক্তি বেগম। তিনি সদর উপজেলার বোয়ালী ইউনিয়নের থানসিংহপুর গ্রামের রাজু মিয়ার স্ত্রী।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ওই ভুক্তভোগী নারী ক্ষুদ্র ও অসহায় একজন চা দোকানী। সেই সুবাদে উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তাসলিমা সুলতানা স্মৃতির নেতৃত্বে সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের নুরু মিয়া নামে এক সক্রিয় সদস্য দোকানে প্রায়ই চা খেতে আসতেন। নুরু মিয়াসহ কয়েকজন প্রতারক বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধী ভাতা কার্ড করে দেয়ার জন্য স্থানীয় লোকজনের নিকট থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে আত্নগোপনে যান।
পরে ভাইস চেয়ারম্যান ও তার স্বামী আলামিন কৌশলে তাদের বাসায় নিয়ে যান ভুক্তভোগী ওই নারীকে এবং টাকা নিয়েছে মর্মে জোরপূর্বক মিথ্যা স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্ধীর একটি ভিডিও ধারণ করে।
এক পর্যায়ে ২০ হাজার টাকা দাবি করে ভাইস চেয়ারম্যান। পরে ১০ হাজার টাকার বিনিময়ে ছাড়া পায় মুক্তি বেগম। বাকি টাকা না দিলে স্বীকারোক্তি ভিডিও ভাইরাল করে দেয়ার কথা বলে ব্লাকমেইল করতে থাকে আলামিন। এ ঘটনায় গাইবান্ধা সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী পরিবার।
লিখিত বক্তব্যে আরো জানান, জোরপূর্বক স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী ভিডিও করে তার উপর মিথ্যাভাবে জোরপূর্বক দায় চাপানোর অপচেষ্টার বিরুদ্ধে অসহায় ঐ পরিবারটি জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
এছাড়া প্রকৃত ঘটনার আসল গডফাদার উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও তার স্বামীসহ প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্ত মুলক বিচার ও শাস্তির দাবি জানান তিনি।
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
বিষয়: * চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন * ভাইস চেয়ারম্যান
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ