সয়াবিন তেলের বোতলের মূল্য মুছে ফেলায়-২৫ লিটার তেল এতিমখানায়

নওগাঁ প্রতিনিধিঃ নওগাঁর নিয়ামতপুরে সয়াবিন তেলের বোতলের মূল্য মুছে ফেলা এবং খোলা হিসেবে বিক্রি করার অপরাধে এক দোকানিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একইসঙ্গে বোতলের গায়ে থাকা মূল্য মুছে ২৫ লিটার তেল এতিমখানায় বিতরণ করা হয়।
রোববার (৬ মার্চ) বিকেলে উপজেলার পুরাতন বাজারে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর এ অভিযান পরিচালনা করে।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সয়াবিন তেলের ঘাটতি নাই। এরপরও কিছু অসাধু ব্যবসায়ী সয়াবিন (প্যাকেট) তেলের বোতলের গায়ে লিখা নির্ধারিত দাম ঘষে তুলে অতিরিক্ত দামে বিক্রি করছে। আবার বোতল কেটে খোলাভাবেও বিক্রি করা হচ্ছে। বিভিন্ন ব্যান্ডের মোড়কজাত সয়াবিন তেল বাজারে ১৬৫-১৬৮ টাকা লিটারে বিক্রি হচ্ছে। কিন্তু খোলা বাজারে বিক্রি হচ্ছে ১৮০-১৯০ টাকা। বেশি লাভের আশায় দোকানিরা কৌশল অবলম্বন করছেন।
নওগাঁ জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক শামীম হোসেন বলেন, বাজারে সয়াবিন তেল সরবরাহের ঘাটতি নেই। কিন্তু এরপরও কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করার অপচেষ্টা করা হচ্ছে। নিয়ামতপুর উপজেলার পুরাতন বাজারে অভিযানকালে বোতলের মূল্য মুছে ফেলা ও প্যাকেট তেল খুলে খোলা বাজারে বিক্রি করা হচ্ছিল। বোতলের গায়ে লেখা দাম মুছে বিক্রির অপরাধে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর অধীনে জুনাঈদ স্টোরকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একই প্রতিষ্ঠানকে প্রতিশ্রুতি পণ্য বা সেবা সরবরাহ না করার অপরাধে আরও ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
তিনি আরও বলেন, মুছে ফেলা ২৫ লিটার তেল স্থানীয় একটি এতিম খানায় বিতরণ করা হয়। জনস্বার্থে এ ধরনের তদারকি অব্যাহত থাকবে।
সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
বিষয়: * জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর * নওগাঁ * সয়াবিন তেল * সয়াবিন তেলের ঘাটতি
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ