কর্ণাটকে হিজাব বিতর্ক: অন্তর্বর্তীকালীন আদেশে যা বললেন আদালত

 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কর্ণাটকে চলমান হিজাব আন্দোলন নিয়ে অন্তর্বর্তীকালীন আদেশ দিয়েছেন সেখানকার হাইকোর্ট। সেই আদেশে বলা হয়েছে, এ বিষয়ে আদালতের চুড়ান্ত রায় আসার আগ পর্যন্ত রাজ্যের কোনো স্কুল-কলেজে ধর্মীয় পোষাক পরে কোনো শিক্ষার্থী আসতে পারবেন না।

বৃহস্পতিবার কর্ণাটক হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি রিতু রাজ আওয়াস্তি, বিচারপতি কৃষ্ণা এস, দিক্ষীত ও বিচারপতি কাজি জয়বুন্নেসা মহিউদ্দিনের সম্মিলিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আদেশে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘এটি একটি অন্তর্বর্তী আদেশ। হিজাব বিতর্ক নিয়ে প্রতিদিন আদালতে শুনানি হবে এবং এ বিষয়ে চূড়ান্ত রায় আসার আগ পর্যন্ত রাজ্যের সব স্কুল-কলেজে এই অন্তর্বর্তী আদেশ প্রযোজ্য হবে।’

আগামী সোমবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) এ বিষয়ে পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করে প্রধান বিচারপতি আরও বলেন, ‘রাজ্যে অবশ্যই শান্তি ফিরিয়ে আনতে হবে এবং স্কুল-কলেজসমূহ অবিলম্বে খুলে দিতে হবে।’

কর্ণাটকে চলমান হিজাব আন্দোলন বর্তমানে ভারতের সবচেয়ে আলোচিত ইস্যুগুলোর একটি। গত মাসে কর্ণটকের উদুপি জেলার একটি প্রাক-বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজের ছয় ছাত্রীকে হিজাব পরার কারণে ক্লাসে ঢুকতে বাধা দেওয়ার মধ্যে দিয়ে এই সমস্যার সূত্রপাত ঘটে। রাজ্যের সাম্প্রদায়িক সংবেদনশীল তিনটি জেলার একটি উদুপি; যা দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ডানপন্থী ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) অন্যতম শক্ত ঘাঁটি।

শ্রেণীকক্ষে হিজাব পরে ক্লাস করা যাবে কি না— তা নিয়ে ওই কলেজ কর্তৃপক্ষ ও মুসলিম নারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে বেশ কিছুদিন ধরে বিবাদ চলে, এর মধ্যেই উদুপির ওই কলেজের ছয় শিক্ষার্থীর শ্রেণীকক্ষের বাইরে বসে থাকার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যাওয়ায় রাজ্যজুড়ে দানা বাঁধতে থাকে বিক্ষোভ।

অল্প সময়ের মধ্যে রাজ্যের অন্যান্য কিছু কলেজে হিন্দু শিক্ষার্থীরা গেরুয়া শাল পরে ক্লাসে আসতে শুরু করে। উভয় পোশাকই ক্যাম্পাসে পরা যাবে না, এমন নির্দেশনা জারি করতে বাধ্য হন কলেআডভেড়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
বিষয়: * ভারতে হিজাব বিতর্ক নরেন্দ্র মোদিআদালত
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ