উলিপুরে বিপন্ন প্রজাতির শকুন উদ্ধার

 

 

 

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি, ৩০.১.২২

কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার পশ্চিম কালুডাঙ্গা মধ্য পাড়া গ্রামের শফিকুর ইসলাম রাজুর বাড়ি সংলগ্ন মাঠ থেকে একটি বিপন্ন প্রজাতির শকুন উদ্ধার করে স্থানীয়রা।  রোববার (৩০ জানুয়ারী) সকালে শকুনটি উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার গুনাইগাছ ইউনিয়নের পশ্চিম কালুডাঙ্গা মধ্য পাড়া গ্রামের শফিকুল ইসলাম রাজুর বাড়ি সংলগ্ন মাঠে রোববার সকালে একটি শকুন উড়ে এসে পড়লে তা স্থানীয়দের নজরে পড়ে। এ সময় এলাকাবাসী শকুনটিকে ধরে শফিকুল ইসলাম রাজুর বাড়ির উঠানে পায়ে দড়ি বেঁধে আটকে রাখে। শকুনটির উচ্চতা দুই ফুটের বেশি, দৈর্ঘ্য (পাখা মেলে) ৯ ফুট, ওজন সাড়ে ছয় কেজি। তাদের ধারনা শকুনটি কিছুটা অসুস্থ্য, তবে দুইটি মুরগির বাচ্চা খেতে দেয়া হলে শকুনটি তা খেয়ে নেয়। তাদের ধারণা শকুনটি প্রতিবেশি দেশ ভারত থেকে আসতে পারে।

ওই এলাকার নুরুল ইসলাম (৬৮) ও সফিকুল ইসলাম (৬৫) জানান, প্রায় ২৫-৩০ বছর থেকে শকুন দেখা যায়না। আগে অনেক শকুন দেখা যেতো। তখন গরু অসুস্থ্য হয়ে মারা গেলে খোলা মাঠে বা বাঁশঝাড়ে ফেলে রাখা হত। তখন এই শকুন দলবেঁধে মরা গরু খেতে আসতো।

 

উলিপুর উপজেলা বন বিভাগের কর্মকর্তা ফজলুল হক জানান, রোববার সকালে উপজেলার গুনাইগাছ ইউনিয়নের পশ্চিম কালুডাঙ্গা মধ্যপাড়া গ্রাম থেকে উদ্ধার হওয়া শকুনটি অামাদের খোঁজে রয়েছে। সেটি স্থানীয় নুরে আলম নামের এক ব্যক্তির তত্ত্বাবধায়নে রাখা হয়েছে। অাগামীকাল সোমবার শকুনটি বন বিভাগের তত্ত্বাবধায়নে নেয়া হবে। সুস্থ থাকলে অবমুক্ত করা হবে।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
বিষয়: * উলিপুর * প্রজাতি * শকুন
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ