সুন্দরগঞ্জে এক শিশুকে গলা চেপে হত্যা

হযরত বেল্লাল, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ
গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার শান্তিরাম ইউনিয়নের শান্তিরাম গ্রামের মারুফ মিয়া (১৩) নামের এক শিশুকে গলা চেপে হত্যা অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল শুক্রবার বিকালে। মারুফ ওই গ্রামের আনারুল ইসলামের ছেলে। জানা গেছে, ওই গ্রামের ফুল মিয়ার ছেলে তাহের মিয়ার সাথে একটি মোবাইল ফোন নিয়ে মারুফের বিরোধ ছিল। ওই মোবাইল ফোনের বিরোধকে কেন্দ্র করে শুক্রবার জুম্মার নামায পর তাহের মারুফকে তার বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়।

এসময় মারুফের চাচাতো ভাই আলামিন তার সাথে ছিল। তাহের মারুফকে তার ঘরের ভিতরে ডেকে নিয়ে মোবাইল ফোন সংক্রান্ত বিষয় বাক্বিতন্ডার একপর্যায় গলা চেপে ধরে। কিছুক্ষণ পর মারুফ মাটিতে লুটিয়ে পড়লে তার সাথে থাকা তার চাচাতো ভাই আলামিন ঘর থেকে দৌড়ে ছুটে গিয়ে মারুফের দাদা-দাদিকে খবর দেয়। দাদা-দাদি এসে দেখে মারুফ মারা গেছে। এরই ফাঁকে তাহের ও তার মা পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে লাশের সুরুতহাল রির্পোট করে। সুরুতহাল রির্পোটে জানা গেছে, মারুফের গলায় চেপে ধরার চিহ্ন রয়েছে। ঘটনাস্থলের পাশে জমিতে কর্মরত দিন মজুর আলমগীর জানান, তাহের গলা চেপে মারুফকে হত্যা করার পর তার মাকে ঘরের ভিতরের ডেকে নিয়ে যায়।

এসময় আলমগীর নিজেও ঘরের ভিতরের গিয়েছি। আলমগীর তাকে ঘরের বাহিরে নিয়ে এসে দেখে সে মারা গেছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য মমিনুল ইসলাম জানান, মোবাইল ফোন সংক্রান্ত জেরধরে হত্যাকান্ডটি সংঘটিত হয়েছে। শান্তিরাম ইউপি চেয়ারম্যান এবিএম মিজানুর রহমান জানান, মোবাইল ফোন সংক্রান্ত পূর্বের জের নিয়ে হত্যাকান্ডটি সংঘটিত হয়। পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত আব্দুল আজিজ জানান, সুরুতহাল রির্পোটে দেখা গেছে, মারুফের গলায় চেপে ধরার চিহ্ন রয়েছে। আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। মারুফের বাবা-মা ঢাকায় গার্মেন্টেস কর্মরত থাকায় মারুফ তার দাদা ইলিয়াস আলীর নিকট থাকতো।

 

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
বিষয়: * গলা চেপে হত্যা * শিশু * সুন্দরগঞ্জ
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ