মৃত্যুর আগ মুহূর্তে সাবেক স্কুল শিক্ষকের হাতের আঙুলের ছাপ নেয়ার অভিযোগ

 

 

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে সবার অজান্তে মৃত্যুর আগ মুহূর্তে রবিন্দ্রনাথ সরকার নামের এক অবসরপ্রাপ্ত  স্কুল শিক্ষকের হাতের আঙুলের ছাপ নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই এলাকায় চাঞ্চল্যের  সৃষ্টি হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার হাসনাবাদ ইউনিয়নের খামার হাসনাবাদ সেনপাড়া এলাকায়। এ ঘটনায় সোমবার (৩ জানুয়ারি) নাগেশ্বরী থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করেছেন মৃতের পুত্রবধূ অঞ্জনা রানী।

এতে জানা যায় গতকাল রোববার ওই ব্যাক্তি অসুস্থ হয়ে পড়লে স্বজনরা তার শারিরীক সেবা যত্ন করার সময় দেখতে পায় তার ২ হাতের বৃদ্ধাঙুলিতে কালির ছাপ লাগানো। এ বিষয়ে পরিবারের লোকজন নাগেশ্বরী থানায় অভিযোগ করতে গেলে সন্ধ্যায় খবর পান তার মৃত্যু হয়েছে। বিষয়টি চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক জনতা ওই বাড়িতে ভিড় জমায়।

পরিবারের অভিযোগ একটি কুচক্রি মহল তাদের ক্ষয়ক্ষতি এবং সম্পদ আত্মসাতের উদ্দেশ্যে এই কান্ড ঘটিয়েছে। আর যে কারণে তার এই মৃত্যু হয়েছে। তাই এর সুষ্ঠ তদন্তসহ বিচার দাবি করেছেন পরিবারের লোকজন। অব. স্কুল শিক্ষক মৃত রবিন্দ্রনাথ রায়ের কৃষ্ণা চন্দ্র (৪৬) ও রত্না সেন (৪০) নামের ২ মেয়ে রয়েছে এবং রঞ্জু কুমার সরকার নামের এক ছেলে ছিলেন। তিনি এক বছর আগে মারা যান। তার স্ত্রী অঞ্জনা রানী শ্বশুর শাশুড়ির সংসারে ২ মেয়েকে নিয়ে থাকেন।

মৃত রবিন্দ্রনাথ সরকারের স্ত্রী ললিতা সরকার (৬৫) জানায়, রোববার তার স্বামী অসুস্থ থাকাবস্থায় নাগেশ্বরী পৌরসভার চামটারপাড় সুখাতি এলাকার জোগেন মোক্তার নামের এক ব্যাক্তি তাকে দেখতে আসেন। তখন তাদের ঘরে কেউ ছিলো না। পরে বের হওয়ার সময় দেখেন তিনি ঘর থেকে বের হয়ে যাচ্ছেন। এ সময় বাড়ির পূত্রবধূর কাছ থেকে পান সুপাড়ি চাইলে তিনি তা খেয়ে চলে যান। পরে তার পুত্রবধূ অঞ্জনা রানী তার শ্বশুরের হাতে পায়ে তেল মালিশ করতে গিয়ে দেখেন ২ হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলিতে কালির ছাপ। এটি দেখে হতবাক হয়ে যান তিনি। পরে ওই জোগেন মোক্তারকে ডাকলে তিনি বিষয়টি অস্বিকার করেন।

মেয়ে রত্না রানী জানায়, তিনি মৃত্যুর খবর শুনে তার স্বামীর বাড়ী থেকে এসে ঘটনাটি জানতে পারেন। তিনি বলেন, কোনো একটি মহল ভবিষ্যতে আমাদের ক্ষয়ক্ষতিসহ অর্থ সম্পদ হাতিয়ে নেয়ার জন্য সকলের অজান্তে আমার বাবার দুই হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলির টিপ সই নিয়েছেন।

পুত্রবধূ অঞ্জনা রানী বলেন, আমি বাবার শরিরে পরিচর্যার জন্য তেল মালিশ করতে গিয়ে দেখি তার আঙ্গুলে কালির ছাপ। কে বা কারা এটি করেছে আমাদের জানা নেই। তবে যেই করুক আমাদের ক্ষতি করার জন্য কিংবা সম্পদ হাতিয়ে নেয়ার উদ্দেশ্যে করেছে।

পরে বিষয়টি অভিযোগের জন্য থানায় গেলে সন্ধ্যায় খবর পাই বাবা মারা গেছে। এ খবর পেয়ে তৎক্ষনাৎ বাড়ি ফিরে আসি। যাতে ভবিষ্যতে আমাদের কোনো ক্ষতি না হয় এ জন্য আমি প্রশাসনসহ সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।

এ ব্যাপারে হাসনাবাদ ইউনিয়নেন নবনির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান মো. নুরুজ্জামান সরকার বলেন, আমি খবর পাওয়ার পর সরেজমিনে গিয়ে দেখি ঠিকই তার হাতের আঙুলে ছাপ। তাই পরিবারের লোকজনকে নিয়ে থানায় জিডি করা হয়েছে।

নাগেশ্বরী থানার ওসি (তদন্ত) পলাশ চন্দ্র জানান, এ ব্যাপারে একটি জিডি করেছেন ওই ব্যাক্তির পুত্রবধূ। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

 

 

 

 

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
বিষয়: * কুড়িগ্রাম * স্কুল শিক্ষকে
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ