চলতি মাসেই সৌর ঝড়ের তাণ্ডবে ঝরে যেতে পারে ইন্টারনেট সেবা

 

এই বছরের শুরু থেকেই বেশ কয়েকটি সৌর ঝড়ের বিষয়ে বারবার সতর্ক করে আসছিলেন বিজ্ঞানীরা। সর্বশেষ গত জুলাই মাসের পর সেপ্টেম্বরে ফের সৌর ঝড়ের মুখোমুখি পৃথিবী। 

 

ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার গবেষক সঙ্গীতা আবদু জ্যোতি, আরভিন এবং ভিএমওয়্যার রিসার্চের প্রকাশিত একটি নতুন রিপোর্ট অনুসারে, যদি এই বৃহৎ সৌর ঝড় হয় তবে এটি ইন্টারনেট ব্ল্যাকআউটের কারণ হতে পারে।

এই সৌর ঝড়ের প্রভাবে তছনছ হয়ে যেতে পারে গোটা পৃথিবীর ইন্টারনেট পরিষেবা। স্তব্ধ হয়ে যেতে পারে যাবতীয় কাজকর্ম। বিশেষজ্ঞদের ভাষায় এই পরিস্থিতি ‘internet apocalypse’।

আবদু জ্যোতি তার গবেষণায় জানিয়েছেন যে, স্থানীয় এবং আঞ্চলিক ইন্টারনেট পরিষেবা সৌর ঝড়ের সময় চরম ক্ষতির মুখে পড়তে পারে। পরিষেবায় স্থায়ী কোনও ক্ষতিও হতে পারে এর ফলে। 

ইন্টারনেট পরিষেবার ক্ষেত্রে সাধারণত ফাইবার অপটিক ব্যবহার করা হয়। গত সপ্তাহেই SIGCOMM 2021 সম্মেলনে এই তথ্য তুলে ধরেন ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার এই গবেষক।

এছাড়াও ক্ষতি হতে পারে মহাদেশগুলিকে সংযুক্ত করে এমন সাগরের গভীরের কেবলগুলিরও। কারণ সেগুলিও ফাইবার অপটিক তারের মাধ্যমে যুক্ত। 

 

গবেষণায় বলা হয়েছে, যদি নেটওয়ার্কের রিপিটারগুলি অফলাইনে চলে যায়, তাহলে সেই ঘটনা ইন্টারনেট ব্ল্যাকআউট তৈরি করার জন্য যথেষ্ট। সমস্যায় পড়তে পারে সেই সব দেশ, যারা শুধুমাত্র সাগরের তলদেশ দিয়ে কেবল দিয়ে আসা ইন্টারনেটের উপর নির্ভর করে।

বিশাল সৌর ঝড় সর্বশেষ রেকর্ড করা হয়েছিল ১৮৫৯ সালে। এরপর ১৯২১ ও ১৯৮৯ সালেও সৌর ঝড় হয়। এতে হাইড্রো-কিউবেক পাওয়ার গ্রিড পুরোপুরি বসে যায়। ৯ঘন্টা ধরে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন ছিল কানাডা।

এই সৌর ঝড় সূর্যের বায়ুমন্ডল থেকে উদ্ভূত। এগুলো পৃথিবীর চৌম্বকীয় শক্তি ক্ষেত্রের দ্বারা প্রভাবিত হয়ে শক্তি বৃদ্ধি করছে ক্রমশ। ফলে পৃথিবীর ওপর এর প্রভাব মারাত্মক ভাবে পড়বে। 

 

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ন্যাশনাল অ্যারোনটিকস অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন তথা নাসার মতে, সৌর বাতাস হল চার্জযুক্ত কণা বা প্লাজমার ঘন স্রোত, যা সূর্য থেকে বেরিয়ে এসে মহাকাশে ভেসে বেড়াতে থাকে। 

সৌরপৃষ্ঠের প্লাজমা

নাসা জানিয়েছে যে সৌর ঝড়ের ফলে স্যাটেলাইট সংকেত বাধাগ্রস্ত হতে পারে। সৌর ঝড়ের কারণে পৃথিবীর বাইরের বায়ুমণ্ডল উত্তপ্ত হতে পারে যা স্যাটেলাইটগুলোর উপর সরাসরি প্রভাব ফেলতে পারে।

এছাড়াও এই সৌর ঝড় জিপিএস নেভিগেশন, মোবাইল ফোন সিগন্যাল এবং স্যাটেলাইট টিভিতে প্রভাব ফেলতে পারে। ব্যাহত হতে পারে পরিষেবা। প্রভাব পড়তে পারে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন পাওয়ার লাইন বা ট্রান্সফর্মারগুলিতে। 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
বিষয়: * Internet apocalypse * সৌর ঝড়