পাবনায় লোকালয়ে আসা কচ্ছপ উদ্ধার; লেকে অবমুক্ত


স্টাফ রিপোর্টার, পাবনা
কয়েকদিনের প্রবল বর্ষণে পাবনা শহরের খাল ডোবা উপচে পানি চলে আসছে রাস্তা সহ লোকালয়ে। সেই পানিতে পথ হারিয়ে ভেসে আসে একটি কচ্ছপ। কচ্ছপটি হাঁটতে হাঁটতে চলে আসে লোকালয়ে। বিষয়টি চোখে পড়ার পর স্থানীয় এক যুবকের সহযোগিতায় কচ্ছপটিকে উদ্ধার করেন বন্য প্রাণী বিষয়ক সংগঠনের সদস্যরা।

মঙ্গলবার (০৩ আগস্ট) পাবনা জেলা শহরের শালগাড়িয়ার পুরোনো এতিমখানা এলাকা থেকে কচ্ছপটিকে উদ্ধার করা হয়। এরপর বুধবার (০৪ আগসট) দুপুরে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘নিরিবিলি’ লেকে কচ্ছপটি অবমুক্ত করা হয়।

কচ্ছপটি উদ্ধারে সহযোগিতা করা পাবনা শহরের শালগাড়িয়া এলাকার বাসিন্দা মাসুদ রানা বলেন, মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে তিনি সড়ক দিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় কয়েকজন যুবক কচ্ছপটিকে ধরে টানাটানি করছিলেন। তাঁদের কেউ কচ্ছপটিকে পিটিয়ে হত্যা, কেউবা বাজারে নিয়ে বিক্রি করতে চাইছিলেন।

বিষয়টি দেখে কচ্ছপটির জন্য মায়া হয় মাসুদ রানা। পরে তিনি জেলা শহরের বন্যপ্রাণী বিষয়ক সংগঠন নেচার অ্যান্ড ওয়াইল্ড লাইফ কনসার্ভেশন কমিটিকে বিষয়টি জানান। দ্রæত কমিটির সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে কচ্ছপটিকে উদ্ধার করেন। পরে বুধবার দুপুরে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘নিরিবিলি’ লেকে কচ্ছপটি অবমুক্ত করেন তারা।

নেচার অ্যান্ড ওয়াইল্ড লাইফ কনসার্ভেশন পাবনার সভাপতি এহসান আলী বিশ্বাস বলেন, উদ্ধার করা কচ্ছপটি লাল কান ¯øাইডার প্রজাতির কচ্ছপ। এর আগেও বিশ্ববিদ্যালয় লেকে এমন তিনটি কচ্ছপ অবমুক্ত করা হয়েছে। লেকটিকে কচ্ছপের অভয়াশ্রম করা গেলে সেখানে কচ্ছপের প্রজনন সম্ভব হবে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর হাসিবুর রহমান বলেন, ‘নেচার অ্যান্ড ওয়াইল্ড লাইফ কনসার্ভেশন’ কমিটির  সদস্যদের সঙ্গে উপস্থিত থেকে আমরা কচ্ছপটি লেকে অবমুক্ত করেছি। কচ্ছপগুলোর যেন কোনো ক্ষতি না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখা হচ্ছে।

তিনি বলেন, লেকটিকে আমরা বিভিন্ন জলজ প্রাণীর অভয়াশ্রম হিসেবেই দেখছি। লেকটিতে কচ্ছপের বংশ বৃদ্ধির উপযোগী রাখতে আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
বিষয়: * কচ্ছপ * পাবনা