বস্তিবাসীদের আধুনিক ফ্ল্যাট হস্তান্তর করলেন প্রধানমন্ত্রী

          
বস্তিবাসীদের জন্য ৩০০ আধুনিক ফ্ল্যাট হস্তান্তর করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার সকালে গণভবনে এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের মাধ্যমে উদ্ধোন করেন তিনি। মিরপুর-১১ নম্বর সেকশনে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নির্মিত বস্তিবাসীদের জন্য এই ফ্ল্যাটের বরাদ্দপত্র হস্তান্তর করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী এ সময় মুজিববর্ষে দেশের সকল গৃহহীনকে অন্তত একটি ঘর প্রদানে তাঁর অঙ্গীকার পুণর্ব্যক্ত করেন এবং বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাংলাদেশ, যে দেশের প্রত্যেকটি মানুষ সুন্দর ও উন্নত জীবন পাবেন।’

‘কিন্তু, আমি জানি জাতির পিতা বেঁচে থাকলে দেশ স্বাধীন হওয়ার ১০ বছরের মধ্যেই দেশের মানুষ উন্নত জীবন পেত। প্রত্যেকটি গ্রাম এবং ওয়ার্ড-ইউনিয়ন পর্যায় পর্যন্ত উন্নত হতো। সে কাজটাই আমরা এখন করে যাচ্ছি,’ যোগ করেন তিনি।

২০১৭ সালে এই পরিকল্পনা গ্রহণ করেন বঙ্গবন্ধুকন্যা। ওই বছরের ২৬ অক্টোবর এ প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়। সরকারি উদ্যোগে বস্তিবাসীদের জন্য নির্মিত এসব ফ্ল্যাটে আধুনিক সব সুবিধা রাখা হয়েছে।

তবে ফ্রি নয়, মাত্র সাড়ে ৪ হাজার টাকা ভাড়ায় এখানে থাকবেন নগর জীবনের সবচেয়ে অবহেলিত মানুষগুলো।

মিরপুর ১১ নম্বর সেকশনে বস্তিবাসীদের জন্য সর্বমোট ১০ হাজার ফ্ল্যাট নির্মাণ করা হবে। এ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে মোট ১৪৮ কোটি টাকা। দ্বিতীয় পর্যায়ে ফ্ল্যাট বরাদ্দ দেয়া হবে আরও ১০০১টি পরিবারকে। এর মধ্য দিয়ে বস্তিতে থাকা ১০ হাজার পরিবার নতুন ফ্ল্যাটে থাকার সুযোগ পাবেন।

এছাড়াও উদ্বোধন করা হয় সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য ২৪৭৪টি ফ্ল্যাট এবং মাদারীপুর সমন্বিত অফিস ভবন।

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের জন্য আজিমপুর সরকারি কলোনিতে রয়েছে ১৭টি ২০তলা ভবনে ১ হাজার ২৯২টি ফ্ল্যাট, মিরপুর ৬ নম্বর সেকশনে ২৮৮টি ফ্ল্যাট, মালিবাগে চারটি ২০তলা ভবনে ৪৫৬টি ফ্ল্যাট এবং মতিঝিলে পাঁচটি ২০তলা ভবনে ৩৮০টি ফ্ল্যাট।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
বিষয়: * প্রধানমন্ত্রী