উগ্রবাদী ওয়াজের অভিযোগে বক্তা আমির হামজা গ্রেপ্তার

ধর্মীয় বক্তা আমির হামজা

ওয়াজের নামে তরুণদের উগ্রবাদে উদ্বুদ্ধ করার অভিযোগে বিতর্কিত ধর্মীয় বক্তা আমির হামজাকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিট।

সোমবার বিকেলে কুষ্টিয়া থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় জানিয়ে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের প্রধান (ডিআইজি) মো. আসাদুজ্জামান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “তাকে ঢাকায় নিয়ে আসা হচ্ছে।”

কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ডাবিরাভিটা গ্রামে আমির হামজার বাড়ি। সেখান থেকেই তাকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায় বলে তার দাদা জান মোহাম্মদ গণমাধ্যমকে জানান।

গত ৫ মে ঢাকার সংসদ ভবন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার এক তরুণ পুলিশকে আমির হামজার ওয়াজের বিষয়ে তথ্য দেন।

পুলিশ বলছে, আবু সাকিব ওরফে আল আমিন নামের ২২ বছর বয়সী ওই তরুণ নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের সদস্য। উগ্রবাদী ওয়াজ শুনে উদ্বুদ্ধ হয়ে তিনি ‘তলোয়ার নিয়ে সংসদ ভবনে হামলার’ পরিকল্পনা করছিলেন।

সাকিবকে গ্রেপ্তার করার পর তার বক্তব্যের ভিত্তিতে রাজবাড়ী থেকে আলী হাসান ওসামা নামে আরেক উগ্রবাদী বক্তাকে গ্রেপ্তার করে সিটিটিসি। পরে তাদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

সিটিটিসি কর্মকর্তারা বলছেন, জিজ্ঞাসাবাদে সাকিবই তাদের মুফতি আমির হামজার কথা বলেন।

সংসদ ভবনে জঙ্গি হামলার পরিকল্পনা করার অভিযোগে রাজধানীর শেরে-বাংলা নগর থানায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে যে মামলা হয়েছিল, সেখানেও আমির হামজার কথা বলা হয়েছিল।

মামলার এজাহারে বলা হয়, সাকিব মোবাইল ফোনে নিয়মিত আলী হাসান ওসামা, মাহমুদুল হাসান গুনবী, আমির হামজা, হারুণ ইজহারের ওয়াজ শুনতেন। সেসব ওয়াজে যেসব বার্তা প্রচার করা হত, তাতেই তিনি উগ্রবাদে উদ্বুদ্ধ হন।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন