প্রকৃতির অপার সৌন্দর্য মন্ডিত সোনালু ফুল গাছ হারিয়ে যাচ্ছে!

 

অ আ আবীর আকাশ, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধিঃ

প্রকৃতির অলংকার সোনালী বা সোনালু ফুল হারিয়ে গেছে। কেউ  আর তালাশ করে না তার। বহু খোঁজাখুঁজি করেও পাওয়া মুশকিল ঐতিহ্যবাহী সোনালু ফুল। সোনা রং বলে তার নাম সোনালী বা সোনালু ফুল হয়েছে।

প্রকৃতির অপার সৌন্দর্যমণ্ডিত এই ফুল এতটাই আকর্ষণীয় যে, মুহূর্তেই নর নারী তার প্রেমে পড়ে যায়। গ্রীষ্ম ঋতুতে গাছের শাখা প্রশাখা জুড়ে থোকা থোকা পুষ্পমঞ্জুরি সোনালী হলুদ ফুলে ঢেকে যায় গাছ। ফুলের ডিজাইন এতোটাই মনোহারী যে একে দেখলে তরুনীর কানের গহনার মতোই লাগে।

এ ফুলের আদি নিবাস হিমালয় অঞ্চলে ধরা হলেও বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলংকা, পাকিস্তান ও মিয়ানমার অঞ্চল জুড়ে রয়েছে এর বিস্তৃতি।

প্রকৃতির নয়নাভিরাম রুপ সাজাতে এবং প্রকৃতি পরিবেশের শোভা বর্ধনে সোনালু গাছ সারিবদ্ধ ভাবে লাগানো হয়। বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে, সড়ক মহাসড়ক, একসময়কার সংসদ ভবনের প্রবেশ পথের দুপাশে সারিবদ্ধ ভাবে এই সোনালু ফুল গাছের দেখা পাওয়া যেতো।

সোনালু ফুল গাছের বাকল এবং পাতার ঔষধি গুনাগুন রয়েছে। এই গাছের বাকল অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, হেফাপ্রোটেক্টিভ গুনাগুন রয়েছে। এটি ডায়রিয়া ও বহুমূত্র রোগের ঔষধ হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

ভেষজ ঔষধি সম্পন্ন এই সোনালী ফুলগাছ সময়ের সাথে হারিয়ে যাওয়ায় তাকে পাওয়া যায় না। দৈনন্দিন মানুষের প্রয়োজনীয় উপকারী এই সোনালু ফুল গাছ বাড়ির  লাগিয়ে একে প্রকৃতিতে টিকিয়ে রাখতে হবে। নইলে একদিন সত্যি ইতিহাস হয়ে যাবে বহু গুণে গুণান্বিত সোনালু ফুল গাছ।

 

সোনালু ফুল গাছ রক্ষার্থে জনসাধারণের পাশাপাশি বাংলাদেশ সরকারকে এগিয়ে আসতে হবে বলে সচেতন মহল মনে করেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন
লাইভ রেডিও
সর্বশেষ সংবাদ