সব কোর্ট খুলে দিলে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়বে: প্রধান বিচারপতি

 

 

                                                                                                                         ফাইল ছবি

চলমান পরিস্থিতিতে সব কোর্ট খুলে দিলে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি আরও বাড়বে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

রোববার আপিল বিভাগের ভার্চুয়াল বেঞ্চে মামলার কার্যক্রম পরিচালনাকালে প্রধান বিচারপতি এ মন্তব্য করেন।

এদিকে, লকডাউনজনিত বর্তমান পরিস্থিতিতে বিভিন্ন মামলায় আসামিদের জামিনের মেয়াদ ও আদালতের অন্তর্বর্তীকালীন আদেশের কার্যকারিতা আরও চার সপ্তাহ বাড়িয়েছে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন।

মামলা পরিচালনার সময় প্রধান বিচারপতি বলেছেন, ঢাকা জজকোর্টে দেখলাম হাজার হাজার লোক। সবাই গায়ের সঙ্গে গা লাগানো। আমরা যদি এখানেও (হাইকোর্টে) ভার্চুয়ালি সব কোর্ট ওপেন করি, এখানেও প্রতিদিন অন্তত তিন হাজার লোকের সমাগম হবে।

এ সময় আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি মোহাম্মদ ইমান আলী বলেন, ইন্ডিয়ান সুপ্রিম কোর্টে করোনায় এক দিনে (গত শনিবার) তিনজন অ্যাডভোকেট অন রেকর্ড মারা গেছেন।

পরে আইনজীবীদের উদ্দেশে প্রধান বিচারপতি বলেন, আমরা এখন কী করব? আমরা তো চাই কোর্ট চলুক। মানুষের আরজেন্সি আছে। জরুরি বিষয়গুলো অবশ্যই শুনব। আপনারা ঢাকা কোর্টের ভিডিও দেখলে অবাক হয়ে যাবেন। সেদিন ঢাকা কোর্টে ৫০ হাজার লোক ছিল।

তখন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ এফ হাসান আরিফ আদালতকে বলেন, কাগজে (পত্রিকায়) দেখি, বন্ধুদের কাছে শুনি, মার্কেটেও ভয়াবহ অবস্থা। তখন প্রধান বিচারপতি বলেন, আমি চাই সব কোর্ট ভার্চুয়ালি চলুক, বাসায় বসে কোর্ট পরিচালনা করুক। কিন্তু লোকজন যে চলে আসে; এফিডেভিট করতে আসবে, এটা করতে আসবে, সেটা করতে আসবে। আমাদের ল ইয়ারদেরও সাংঘাতিক অসুবিধা। আমি তো ল ইয়ার থেকেই এখানে এসেছি।

পরে আদালত আপিল বিভাগের দৈনন্দিন কার্যতালিকায় থাকা মামলার ওপর শুনানি শুরু করেন।

 

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন